আপডেট : ৩ মার্চ, ২০১৮ ১৭:০৫

‘হিমালয়ে উঠে কাপড়চোপড় খুলে নাচানাচি করিনি’

অনলাইন ডেস্ক
‘হিমালয়ে উঠে কাপড়চোপড় খুলে নাচানাচি করিনি’

ফেসবুকে মানুষ এমনও মন্তব্য করে যে আমি কখনই নোর্টিফিকেশন ওপেন করি না ভয়ে। ওপেন করলে কে জানে কী দেখতে হবে তাতে আমার সারাটা দিন খারাপ যাবে। আর আমি চাই না আমার দিনটা খারাপ যাক। আর ফেসবুকে আমি এমন কিছু আপলোড করিনি যাতে আজকে আমাকে এ পরিস্থিতিতে পড়তে হবে। এমন একটা দিন আমাকে দেখতে হবে বুঝতে পারিনি। আমি এমন কিছু করিনি, এমন কোনো ছবি নেই, যাতে আমার বাসায় উকিল নোটিশ পাঠাতে হবে।

আমি খুবই শর্ট টেম্পার। হুট করে রেগে যাই। নিজের উপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলি। রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে চাই। কোনো সাজেশন থাকলে বলবেন। কী খাইলে, কী করলে বা কোন ডাক্তারের কাছে ট্রিটমেন্ট করলে এ রাগ ঠিক হবে জানাবেন। 

আমি হিমালয়ের উপরে উঠে কাপড়চোপড় খুলে নাচানাচি করিনি যে উকিল নোটিশ পাঠাতে হবে। আমাকে একটি ফোন দিতে হতো, মেসেজ করতে পারতো।

আমার পরিবার অনেক রক্ষণশীল। সিনেমায় আসা অনেক কঠিন ছিল। আমি খুবই সাধারণ একটা মেয়ে। বাবা-মা চলচ্চিত্র সংশ্লিস্ট কেউ নন। তকদিরে-নসীবে কী আছে জানি না। আমি কাজের জায়গায় শতভাগ দিব। ভুল-ত্রুটি হবেই। আমি ছোট্ট একটা মানুষ। একটা সিনেমাও রিলিজ পায়নি। ওই জায়গা থেকে সবার সহযোগিতা চাই।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে