আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৪:৫৬

খালেদা জিয়াকে নিয়ে কথা বলার সময় নেই ওবায়দুল কাদেরের

অনলাইন ডেস্ক
খালেদা জিয়াকে নিয়ে কথা বলার সময় নেই ওবায়দুল কাদেরের

কারাবযডন্দি খালেদা জিয়ার প্যারোল নিয়ে প্রশ্ন করায় বিরক্ত হয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, আমাদের অনেক কাজ। একজন খালেদাকে নিয়ে বারবার প্রশ্নের জবাব দেবার সময় নেই।

বুধবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের ঢাকা বিভাগের সকল সংগঠনের জেলা সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্যদের ‌বি‌শেষ যৌথসভার শুরুতে এসব কথা বলেন তিনি।

সাংবা‌দিক‌দের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বাংলাদেশ আজ বিশ্বসভায় মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে। দেশ‌কে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। আমাদের অনেক কর্মসূচি রয়েছে আমাদের অনেক কাজ রয়েছে। এখন খালেদা জিয়াকে নিয়ে বারবার আপনাদের প্রশ্নের জবাব দেবো সেই সময় আমাদের নেই। এ নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। এই প্রশ্ন দয়া করে আর করবেন না।’

তিনি বলেন, ‘খালেদার বিষয়ে আদালত সিদ্ধান্ত নেবে। এটা আওয়ামী লীগের হাতে নেই, শেখ হাসিনার হাতে নেই, আমাদের কারও কাছে নেই। কাজেই একই প্রশ্ন বারবার করে বিব্রত করবেন না। এই প্রশ্নের জবাব আমি দেব না।’

এ সময় ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে কারচুপির যে অভিযোগ বিএনপি করছে তা নিয়েও কথা বলেন ওবায়দুল কা‌দের।

তিনি বলেন, ‘বিরোধী দল প্রচার কর‌ছে নির্বাচ‌নে কারচুপি হয়ে‌ছে। কিন্তু ইভিএমে কারচুপি বা জা‌লিয়া‌তির কোনো সুযোগ ছিল না। যদি এরকম সুযোগ থাকত তাহলে নির্বাচনে পার্সেন্ট বেশি বা অস্থিতিশীলতা হ‌তো। যদি কোন প্রকার কারচুপি ও জালিয়াতির আশ্রয় নেয়া হতো তাহলে এই নির্বাচনের অবস্থা ভিন্নতর হতে পারত।’

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কর্নেল (অব.) ফারুক খান, শাজাহান খান, আবদুর রহমান, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা বিভাগীয় বিভিন্ন জেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ।

উল্লেখ্য, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় দণ্ডিত হয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে যান বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এরই মধ্যে তার কারাজীবনের দুই বছর কেটে গেছে। কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়ায় গত বছরের ১ এপ্রিল মাসে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ভর্তি করা হয়। এখনও তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন। গত ১১ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার ছয় স্বজন তাকে হাসপাতালে দেখে আসেন।

বেরিয়ে এসে তারা জানান, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য তারা বিদেশ নিয়ে যেতে চান। এ জন্য প্যারোলে মুক্তি দিলে তাতে তাদের আপত্তি থাকবে না। অবশ্য প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে বিএনপি নেতারা দ্বিধাবিভক্ত। খালেদা জিয়ার জামিন চেয়ে বুধবার আবারও আবেদন করেছে বিএনপি।

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে