আপডেট : ৩১ মার্চ, ২০১৬ ১৩:৩২

শতাধিক বাংলাদেশি রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীকে বহিষ্কার করবে যুক্তরাষ্ট্র

অনলাইন ডেস্ক
শতাধিক বাংলাদেশি রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীকে বহিষ্কার করবে যুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্রে অনুপ্রবেশের অভিযোগে দেশটির বিভিন্ন কারাগারে বন্দী বাংলাদেশের শতাধিক নাগরিককে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থী এই নাগরিকদের সে দেশে বসবাসের আবেদন গৃহীত হয়নি।

এদিকে তাঁদের ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া স্থগিত করতে উদ্যোগ নিয়েছেন মার্কিন কংগ্রেসে বাংলাদেশ ককাসের বর্তমান উপপ্রধান কংগ্রেস সদস্য জোসেফ ক্রাউলি।
জোসেফ ক্রাউলি মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটি দপ্তরে চিঠি লিখে ওই বাংলাদেশিদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত অবিলম্বে স্থগিত করে তাঁদের রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন পুনর্বিবেচনার অনুরোধ করেছেন।

দেশে ফেরত পাঠালে এসব আশ্রয়প্রার্থী সরকারি রোষের শিকার হতে পারেন কি না এবং কোনো বিশেষ রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার কারণে তাঁদের আবেদন নাকচ করা হয়েছে কি না, ক্রাউলি তাঁর চিঠিতে তা জানতে চেয়েছেন। আবেদন প্রক্রিয়া পুনর্বিবেচনা সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত তাঁদের বহিষ্কারাদেশ স্থগিত রাখারও অনুরোধ করেন তিনি।
অভিবাসী অধিকারবিষয়ক মানবাধিকার সংস্থা ‘ড্রাম’-এর নির্বাহী পরিচালক ফাহদ আহমেদ বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্তের কথা  নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গত সপ্তাহে ড্রামের একটি প্রতিনিধিদল ক্রাউলির সঙ্গে দেখা করে এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপের অনুরোধ করে।
ফাহদ আহমেদ বলেন, যেসব বাংলাদেশি আশ্রয়প্রার্থীকে অবিলম্বে বহিষ্কারের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, তাঁদের অনেকে রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদনপত্রে নিজেদের বিএনপির সমর্থক হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন।
এ ব্যাপারে পররাষ্ট্র দপ্তরে যোগাযোগ করা হলে তারা বিষয়টি হোমল্যান্ড সিকিউরিটির এখতিয়ারভুক্ত উল্লেখ করে এ ব্যাপারে অতিরিক্ত কোনো তথ্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করে।
এক বছরেরও বেশি সময় ধরে কারাবন্দী এসব বাংলাদেশির অনেকে মুক্তির দাবিতে বিভিন্ন সময়ে অনশন করেছেন। কোনো কোনো আশ্রয়প্রার্থী নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দেশ ছাড়বেন—এই শর্তে মুক্তিও পেয়েছেন।
ফাহদ আহমেদ আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, কংগ্রেসম্যান ক্রাউলির হস্তক্ষেপ সত্ত্বেও ওই আশ্রয়প্রার্থীদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর বিষয়টি ঠেকানো কঠিন হবে।
ড্রাম কয়েক মাস ধরে ওই রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীদের পক্ষে আইনি লড়াইয়ে সহায়তা করে আসছে। গত মঙ্গলবার তারা নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে ডেমোক্রেটিক দলের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের প্রচারণা দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে এবং বহিষ্কারাদেশ  প্রত্যাহারের জন্য তাঁর হস্তক্ষেপ কামনা করে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে