রোনালদো ছাড়াই শিরোপা জিতে দেখালেন জিদান!

প্রথমবারের মতো সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত স্প্যানিশ কাপের শিরোপা জিতে নিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। ফাইনালে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদকে টাইব্রেকারে ৪-১ গোলে হারিয়েছে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। নির্ধারিত সময়ে কোন দল গোল করতে না পারায় খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে, সেখানেও গোল করতে ব্যর্থ হয় দুই দল। পরে টাইব্রেকারে জয় তুলে নেয় রিয়াল মাদ্রিদ।

স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালটি হতে পারতো আগুনঝরা এক এল ক্লাসিকো, তবে বার্সেলোনা অপ্রত্যাশিতভাবে গ্রুপপর্ব থেকে বিদায় নেওয়ায় সেটা হয়নি। মাদ্রিদ ডার্বিতে রূপ নেয় সেটি।

‘গোল করবো না’ এমন প্রতিজ্ঞা নিয়েই বোধহয় বাদশাহ আব্দুল্লাহ স্টেডিয়ামে নেমেছিল রিয়াল-অ্যাথলেটিকো। রিয়াল বস জিদান কিছুটা রক্ষণাত্মক কৌশলে দল সাজিয়েছিলে। আর অ্যাথলেটিকোও ‘আগে ঘর সামলাও’ নীতি গ্রহণ করায় গোল শূন্য ভাবেই শেষ হয় নির্ধারিত সময়ের খেলা। এরপর অতিরিক্ত ৩০ মিনিট খেলেও কোন দল গোল করতে পারেনি।

রক্ষণাত্মক কৌশলে দল সাজালেও পুরো ম্যাচে আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছে রিয়াল মাদ্রিদ। জিদানের পরিকল্পনাই হয়তো ছিল যে করেই হোক শিরোপা ঘরে তুলতে হবে। রোনালদো পরবর্তী যুগে এখনও যে রিয়ালের হয়ে কোন শিরোপা জেতা হয়নি জিদানের। রোনালদো ছাড়াও যে রিয়াল শিরোপা জিততে পারে সেটা প্রমাণ করার দায় ছিল জিদানের কাঁধে।

১১৫ মিনিটের মাথায় ভালভার্দে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লে ১০ জনের দলে পরিনত হয় রিয়াল মাদ্রিদ। তবে তাতে কিছু ক্ষতি হয়নি। ১০ জনের রিয়ালের বিপক্ষেও গোল করতে ব্যর্থ হয় ডিয়েগো সিমিওনের শিষ্যরা।

পুরো ম্যাচে বল দখলের লড়াইয়ে পিছিয়ে ছিল অ্যাথলেটিকো। গোল মুখে শটও নিয়েছে কম। আর যেগুলো নিয়েছে তাও এলোমেলো, গোল করার মতো শট একটিও ছিল না। টাইব্রেকারেও একই দশা অ্যাথলেটিকোর, প্রথম দুটি শটেই গোল করতে ব্যর্থ হয় তারা।

টাইব্রেকারে প্রথম শট নেন রিয়ালের কার্বাহাল, ঠিকঠাক বল জালে জড়িয়ে দেন তি। ১-০ তে এগিয়ে যায় রিয়াল মাদ্রিদ। এরপর আসে অ্যাথলেটিকোর পালা, প্রথমে শট নিতে এসেই মিস করে বসেন সাউল। এরপর অ্যাথলেটিকোর হয়ে দ্বিতীয় শট নিতে এসে মিস করেন পার্তো। শেষ পর্যন্ত টাইব্রেকারের ফল হয় ৪-১। প্রথমবারের মতো স্পেনের বাইরে অনুষ্ঠিত স্প্যানিশ সুপার কাপের শিরোপা জিতে নেয় রিয়াল মাদ্রিদ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

মন্তব্য