সূর্যগ্রহণের সময় যে কাজগুলো ভুলেও করবেন না

শুরু হয়েছে বিরল মহাজাগতিক দৃশ্য অগ্নিবলয় সূর্যগ্রহণ। বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ সময় ৮টা ৩০ মিনিট ৫৩ সেকেন্ডে শুরু হয়েছে এই সূর্যগ্রহণ। শেষ হবে দুপুর ২টা ৫ মিনিট ৩৬ সেকেন্ডে। আকাশ পরিষ্কার থাকলে বাংলাদেশ থেকেও আংশিক দেখা যাবে বিরল এই সূর্যগ্রহণ।

অনেকেই এই ‘রিং অব ফায়ার’ দেখতে উদগ্রীব হয়ে আছেন। তবে এই অগ্নিবলয় সূর্য গ্রহণ খালি চোখে দেখা অত্যন্ত ক্ষতিকর হবে বলে জানিয়েছেন অনুসন্ধিৎসু বিজ্ঞান চক্র সংগঠন। খালি চোখে কয়েক সেকেন্ডের জন্য দেখলেও চোখের রেটিনায় মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। এমনকি টেলিস্কোপ, পেরিস্কোপ, সানগ্লাস, দূরবীন কোন কিছুর সাহায্যেও গ্রহণ দেখার সময় সূর্যের দিকে সরাসরি তাকানো যাবে না। এসময় সূর্য রশ্মি অত্যন্ত সংবেদনশীল থাকে যা চোখে প্রভাব ফেলতে পারে। যার কারণে চোখের দৃষ্টিশক্তিও হারাতে হতে পারে।

আয়ুর্বেদ শাস্ত্র সূর্যগ্রহণ চলাকালে খাবার খেতে বারণ করেছে। একমাত্র বৃদ্ধ, অসুস্থ ও গর্ভবতী মহিলারা হালকা খাবার খেতে পারবেন।

কিছু কিছু মানুষ মনে করেন গর্ভবতী মহিলার গর্ভে থাকা শিশুর জন্য সূর্যগ্রহণ অত্যন্ত বিপজ্জনক। তাই গর্ভবতী মহিলাদের গ্রহণ চলাকালে ঘরের বাইরে যাওয়া উচিত নয়। এতে গর্ভের সন্তানের বিপদ ঘটতে পারে।

শেষবার ১৭২ বছর আগে এই ধরণের অগ্নি বলয় সূর্য দেখা গিয়েছিল। বিরল এই গ্রহণের সময় সূর্যের চারপাশে আগুনের বলয় থাকবে। এটিকে বিজ্ঞানীরা ‘রিং অব ফায়ার’ নাম দিয়েছেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

মন্তব্য