‘টেস্টে আর খেলতে চান না সাকিব’

দশ দিনের ব্যবধানে দুইবার নেতৃত্ব ছাড়ার ইচ্ছের কথা জানিয়েছেন বাংলাদেশ দলের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। নেতৃত্বে না থাকলে নিজের খেলায় আরও মনোযোগ দিতে পারবেন এমন দাবি তাঁর। তবে বাংলাদেশের ক্রিকেট ঐতিহ্য বলছে , নেতৃত্ব কেউ একবার পেয়ে গেলে সহজে আর সেটা ছাড়তে চান না। দলের ক্রমাগত ব্যর্থতার পরেও অধিনায়কত্ব ধরে রাখার চেষ্টা করেন। সাকিব এই জায়গাটা্য় উল্টো, কারণটা কী?

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন মনে করছেন, সাকিব আসলে টেস্ট ফরম্যাটে আর খেলতে চান না। তাই নেতৃত্ব ছেড়ে দেওয়ার কথা বলছেন বারবার। আজ বুধবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, টেস্ট খেলায় আগ্রহ নেই সাকিবের। এজন্য সে অধিনায়কত্ব নিয়ে এমন কথা বলছে।

সাকিবের এখন আর টেস্ট খেলার মতো মানসিকতা নেই বলেই মনে করছেন নাজমুল হাসান পাপন। বারবার নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার কথা বলায় সাকিবের ওপর কিছুটা বিরক্তও বিসিবি সভাপতি।

২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের আগে ৬ মাসের ছুটি চেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। বিসিবি সে সময় তিন মাসের ছুটি মঞ্জুর করেছিল।

বিসিবি সভাপতির উপলব্ধি, “টেস্ট খেলার প্রতি আগ্রহ নেই বলই মাঝেমধ্যে ছুটি চাইতেন সাকিব। পাপনের ভাষায় ‘টেস্ট খেলার ইচ্ছে নেই বলেই হয়তো মাঝেমধ্যে টেস্টের সময় বিশ্রাম নিতো সে, আমার ধারণা তেমনই।”

অথচ এই টেস্ট ফরম্যাটেই সাকিবের এমন সব অসাধারণ অর্জন আছে যেগুলো তাকে বিশ্বের সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডারদের তালিকায় জায়গা করে দিয়েছে। সাকিব যদি টেস্ট থেকে অবসর নিতে চান সেটা হবে বাংলাদেশের জন্য বড় দুঃসংবাদ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম    

মন্তব্য