রাজাকারদের তালিকা প্রকাশ করা হবে ১৬ ডিসেম্বর

অবশেষে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজাকারদের তালিকা প্রকাশের উদ্যোগ নিয়েছ সরকার। আসন্ন বিজয় দিবস (১৬ ডিসেম্বর) থেকে এই তালিকা প্রকাশ করবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। পর্যায়ক্রমে এই তালিকা প্রকাশ করা হবে। সে সঙ্গে আগামী বিজয় দিবসে মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকাও প্রকাশ করা হবে।

রোববার (০১ ডিসেম্বর) জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানায়।

একাত্তরে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় থানা, মহকুমা, জেলা প্রশাসন থেকে বেতন-ভাতা উত্তোলনকারী রাজাকারদের তালিকা যথাযথভাবে সংরক্ষণ করার সুপারিশ করেছিল সংসদীয় কমিটি। গত ২৫ আগস্ট মন্ত্রণালয় সংসদীয় কমিটিকে রাজাকারদের তালিকা সংগ্রহের কাজ শুরুর কথা জানায়। এ জন্য জেলা প্রশাসকদের কাছে চিঠি পাঠানো হয়।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, রাজাকার, আলবদর ও আল শামসদের তালিকা প্রণয়নের কাজ অব্যাহত রয়েছে। এরইমধ্যে যেসব জেলার রাজাকারদের তালিকা মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ে এসেছে সেগুলোই বিজয় দিবসে প্রকাশ করা হবে।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি শাজাহান খান সাংবাদিকদের বলেন, ‘রাজাকারদের তালিকা হাতে আসা শুরু হয়েছে। কয়েকটি জেলার তালিকা এসেছে তবে তা পূর্ণাঙ্গ নয়। মন্ত্রণালয় বলেছে, আগামী ১৬ ডিসেম্বর থেকে যতটুকু আসবে পর্যায়ক্রমে প্রকাশ করা হবে। ১০ ডিসেম্বর জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের বৈঠক আছে সেখানে এ বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে।’

জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সভাপতি শাজাহান খান সভাপতিত্ব করেন। কমিটির সদস্য মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, রাজি উদ্দিন আহমেদ, মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম, বীর উত্তম এবং এ বি তাজুল ইসলাম, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং বিভিন্ন সংস্থার প্রধানরাসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে অংশ নেন।


বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

মন্তব্য