নিজেদের ‘কবর’ নিজেরাই খুঁড়ে রেখেছিল বাংলাদেশ?

বিদেশের মাটিতে আফগানিস্তানের প্রথম টেস্ট জয়। বাংলাদেশের মাটিতে ২২৪ রানে জয় তুলে নিল রশিদ খানের আফগান-বাহিনী। ম্যাচে ১১ উইকেট এবং ৭৫ রান করে একাই পার্থক্য গড়ে দিলেন আফগান স্পিনার। কিন্তু কী কারণে এই লজ্জার হার বাংলাদেশের? নিজেদের ভুলেই কি হারল বাংলাদেশ? দেখে নেওয়া যাক কারণগুলি_

টেস্টের প্রথম দিনেই চমক। টসের পর টিম লিস্ট দেখে চমকে উঠল ক্রিকেট মহল। দু’টি দল মিলিয়ে এক জন পেসার! তিনি আফগান মিডিয়াম পেসার ইয়ামিন আহমাদজাই।

এই দল ঘোষণাই বুঝিয়ে দিচ্ছিল প্রথম দিন থেকেই বল ঘুরবে পিচে। হলও তাই। বাংলাদেশের হয়ে নতুন বল হাতে তুলে নেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। একে একে সাকিব আল হাসান, মেহেদি হাসানরা বল করতে এলেন সাফল্য পেলেন। কিন্তু ড্রেসিংরুমে বসে তখন মুচকি হাসছেন আফগান অধিনায়ক।

ব্যাট হাতে বাংলাদেশি বোলারদের কালঘাম ছুটিয়ে দেন আফগান রহমত শাহ। জীবনের প্রথম টেস্ট শতরান পেয়ে যান তিনি। নাম লেখান ইতিহাসেও। আফগানিস্তানের হয়ে প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির মালিক হলেন তিনি। তাঁর সঙ্গ দেন আসগার আফগান। ৯২ রানের এক দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন তিনি।দ্বিতীয় ইনিংসেও করেন ৫০ রান।

ব্যাট হাতে প্রথম ইনিংসে ৫১ এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ২৪ করেন রাশিদ। বল করতে নেমে বাংলাদেশকে ২০৫ রানে অলআউট করে দেন আফগানরা। মূল কাণ্ডারি আবার সেই রশিদ খান। ঘূর্ণি পিচ ব্যুমেরাং হয়ে যায় বাংলাদেশের জন্য। মমিনুল হক ছাড়া কোনও বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান অর্ধশতরানের গণ্ডিও টপকাতে পারেননি।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ইব্রাহিম জাদরানরা নিজেদের লিডকে নিয়ে যান ৩৯৮ রানে। এই বিশাল রান টপকে জয় পাওয়া যে বেশ কঠিন হবে সাকিবদের জন্য, তা বোঝাই যাচ্ছিল।

চতুর্থ দিনের খেলায় আবার রাশিদের স্পিনের জাদুতে পথ হারিয়ে ফিরতে শুরু করেন বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা। ছয় উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় তারা। একা প্রতিরোধ গড়েন সাকিব।

হার যখন প্রায় নিশ্চিত, তখনই তাদের রক্ষাকর্তা হয়ে এসেছিল বৃষ্টি। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। রশিদের ভেল্কিতে মাত্র ১৮ ওভারেই গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ!

হারের মুখে দাঁড়িয়ে থাকা বাংলাদেশ স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছিল বৃষ্টির আশীর্বাদে। তবে তা বেশিক্ষণ স্থায়ী হল না। খেলা শুরু হতেই ফিরলেন সাকিব। বাকি তিন ব্যাটসম্যানকে ফেরান রশিদ। প্রথম টেস্ট জয়ের ম্যাচের সেরাও তিনি।

ঘূর্ণি পিচ তৈরি করে তাতেই হুড়মুড়িয়ে পড়েন সাকিবরা। নিজেদের কবর যেন নিজেরাই খুঁড়ে রেখেছিলেন তাঁরা। এখন দেখার এই ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে পারে কিনা বাংলাদেশ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

মন্তব্য