বাবরী মসজিদের জায়গায় ‘রাম মন্দির’ নির্মাণের রায়, বিকল্প জমি পাবে মুসলিমরা

ভারতের বহু বিতর্কিত বাবরী মসজিদের মূল জমির মালিকানা পেল হিন্দুরা। মসজিদ নির্মাণে মুসলমানদের জন্য বিকল্প জমি বরাদ্দের নির্দেশ দিয়েছেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। মসজিদের নিচে কাঠামো ছিল, ফাঁকা জায়গায় বাবরী মসজিদ তৈরি হয়নি বলেও রায়ে ঘোষণা করেছেন প্রধান বিচারপতি। সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড কোন অধিকার দাবি করতে পারবে না। শর্ত সাপেক্ষে মূল বিতর্কিত জমি পাবে হিন্দুরা। রায় ঘোষণা এখনও চলছে

আজ শনিবার (০৯ নভেম্বর) শত বছরের পুরনো ‘বাবরী মসজিদ’ মামলার রায় ঘোষণা করছেন ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জণ গগৈ। বেঞ্চের অন্য বিচারপতিরা হচ্ছেন এসএ বোবদে, ডিওয়াই চন্দ্রচূড়, অশোক ভূষণ এবং এস আব্দুল নাজির।

১৯৯২ সালে কট্টরপন্থী মৌলবাদী হিন্দুরা বাবরি মসজিদ ভেঙ্গে ফেলার পর হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গায় কমবেশি ২০০০ লোক নিহত হয়েছিল। এ কারণে রায় ঘোষণার মাসখানেক আগে থেকেই অযোধ্যা শহরে ১৪৪ জারি রয়েছে। এমনিতেই বিতর্কিত জমিটির কাছাকাছি যাওয়া যায় না সহজে। চারদিকে লোহার বেড়া আছে। ২৪ ঘণ্টা সেটিকে ঘিরে রাখে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীর কয়েকশো সদস্য। আর এখন হাজার হাজার বাড়তি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে অযোধ্যায়।

বাবরি মসজিদ মামলার রায়কে ঘিরে আইনশৃঙ্খলার অবনতি যাতে না হয় বা সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা যাতে না ছড়ায়, তার জন্য ব্যাপক নিরাপত্তার ব্যবস্থা হচ্ছে অযোধ্যা শহর সহ উত্তরপ্রদেশ জুড়ে। রাজ্যের সমস্ত স্কুল-কলেজ কয়েকদিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। কড়া নজর রাখা হচ্ছে সামাজিক মাধ্যমেও যাতে কেউ গুজব ছড়াতে না পারে। লাখনৌ আর জেলা সদরগুলিতে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।

অযোধ্যার বাবরী মসজিদের জমির অধিকার নিয়ে হিন্দু ও মুসলিম দু’পক্ষেরই নিজেদের মধ্যে বিবাদ রয়েছে। তবে, আদালতে দু’পক্ষের আইনজীবীরাই কয়েকটি সাধারণ যুক্তি পেশ করেন। হিন্দুদের দাবি, বাল্মীকি রামায়ণে অযোধ্যাই রামের জন্মস্থান। এই জমিতেই রামের জন্ম হয় বলে মানুষের যুগ যুগ ধরে বিশ্বাস। মুসলিম পক্ষের পাল্টা যুক্তি, বাল্মীকি রামায়ণের আইনি ভিত্তি নেই। আদালতে কীভাবে প্রমাণ করা যাবে যে এটাই রামের জন্মস্থান? সেই বিতর্কিত রাম মন্দির বাবরি মসজিদ মামলার রায় আজ শনিবার ঘোষণা করতে চলেছে সুপ্রিম কোর্ট। ভারতের সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ অবসর নেওয়ার আগেই এই মামলার রায় ঘোষণা করা হবে বলে শীর্ষ আদালত জানিয়েছিল। সেই ঘোষণা অনুযায়ী শনিবার রায় ঘোষণা হতে চলেছে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

মন্তব্য