তারেকের নেতৃত্বে অনাস্থা: মোর্শেদ খানের পর বিএনপি ছাড়লেন মাহবুবুর রহমান

তারেকের নেতৃত্বে অনাস্থা জানিয়ে বিএনপিতে শীর্ষ নেতাদের পদত্যাগের হিড়িক পড়েছে। ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী, ইনাম আহমেদ চৌধুরী, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোরশেদ খানের পর বিএনপি ছাড়লেন সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম স্থায়ী কমিটির সদস্য লে.জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির একাধিক সূত্র জানায়, মাহবুবুর রহমানের পদত্যাগের পেছনের কারণ দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সরাসরি বিরোধীতা করা।

দলের সিনিয়র নেতাদের এই পদত্যাগে নতুন সংকটের মুখে পড়েছে বিএনপি। লে. জে, মাহবুবুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘যে দলের মধ্যে গণতন্ত্র নেই। সিদ্ধান্ত গ্রহণের স্বচ্ছতা নেই। অদৃশ্য ইশারায় দল চলে। সে দলে থাকার কোন মানে নেই। এই জন্য তিনি দল ছেড়েছেন।’

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোরশেদ খানও তার পদত্যাগপত্রে বলেছেন, ‘দলের ভেতরে গণতন্ত্র নেবি। দলের ভিতরে কোন জবাবদিহীতা নেই। দলের নেতৃত্বের মধ্যে কোন সমন্বয় নেই। দল চলে লন্ডনের স্কাইপিতে। স্কাইপিতে কোন রাজনৈতিক দল চলতে পারে না। এ কারণেই তিনি দল ছেড়েছেন।’

বিএনপিতে এখন হেভিওয়েটদের দল ছাড়ার হিড়িক শুরু হল। আরও অনেকেই দল ছাড়বেন বলে শোনা যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, সাবেক সেনাপ্রধান লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান বিএনপির অন্যতম একজন প্রভাবশালী নেতা হিসেবে পরিচিত ছিলেন। তিনি বিএনপির সর্বেচ্চ নীতিনির্ধারনী ফোরাম স্থায়ী কমিটির সদস্য ছিলেন।

অন্যদিকে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোরশেদ খানও বিএনপির রাজনীতিতে খুব প্রভাবশালী নেতা ছিলেন। দলের ফান্ড দেওয়া অন্যতম নেতা ছিলেন তিনি। মোরশেদ খান কিছুদিন আগে অভিযোগ করেছিলেন, ‘তারেককে অর্থ দিতে দিতে তিনি ফতুর হয়ে গেছেন। তিনি আর দল করতে চান না।’ ঠিক তার একমাস পর তিনি দল থেকে সরে দাঁড়ালেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

মন্তব্য