আপডেট : ২ জুলাই, ২০২০ ১৭:১৯

চিকিৎসকের নিকট যে লক্ষণগুলো ভুলেও গোপন করবেন না

অনলাইন ডেস্ক
চিকিৎসকের নিকট যে লক্ষণগুলো ভুলেও গোপন করবেন না

আমাদের শরীরে প্রায় সময় অনেক ধরণের  শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়। যেসব সমস্যার মধ্যে কিছু সমস্যা এমনি এমনি ভালো হয় আবার কিছু সমস্যার  সমাধানে  জন্য ডাক্তারের কাছে যেতে হয়। তাদের সঠিক চিকিৎসার কারণে সুস্থতাও পেয়ে থাকি। তবে এমন কিছু শারীরিক লক্ষণ রয়েছে যেগুলো আমরা ডাক্তারের কাছে বলার প্রয়োজন মনে করি না। ভেবে থাকি এই সমস্যাগুলো আপনা আপনি সেরে যাবে। যা আমাদের সব থেকে বড় ভুল! 

স্বাস্থ্য ও জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আমাদের মধ্যে এমন অনেকে আছেন, যারা ডাক্তারের কাছে নিজের রোগ নিয়ে সত্যি কথা বলেন না। তবে নিজেদে সুস্থ থাকতে এবং রোগ নির্ণয়ে ডাক্তারদের সাহায্য করতে, আমাদের সর্বদা সত্যি কথা বলা উচিত। এ ছাড়া এমন কিছু রোগ রয়েছে যা আমরা সাধারণ ভেবে এড়িয়ে চলি। কোনো ধরনের রোগ বা রোগের লক্ষণ কখনো ডাক্তারের কাছে এড়িয়ে যাওয়া উচিত নয়।

চলুন তবে জেনে নেয়া যাক কোন কোন শারীরিক লক্ষণ দেখা দিলে ডাক্তারের কাছে এড়িয়ে যাওয়া ঠিক নয়- 

মাথা ঘোরা

আমরা অনেকেই ভাবি দুর্বলতা বা রোদে হাঁটার ফলে মাথা ঘোরার সমস্যা দেখা দেয়। তবে স্ট্রোক সিন্ড্রোমের মতো অন্তর্নিহিত কারণগুলোর জন্য মাথা ঘোরা আছে কি না, তা সন্ধানের চেষ্টা করুন। তাই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

ব্যাক পেইন

আধুনিক জীবনযাত্রায় ব্যাক পেইন সাধারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমরা অনেকেই মনে করি, সাধারণত পিঠে ব্যথা মানেই বসা বা শোওয়ার কোনো সমস্যা থেকেই এটি দেখা যায়। তবে সব ক্ষেত্রে তা ভাববেন না, এটি শরীরের অভ্যন্তরের কোনো গুরুতর সমস্যা থেকেও হতে পারে। তাই রোগটি নির্ণয় করতে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

দৃষ্টিশক্তি হ্রাস

এই লক্ষণকে কখনো উপেক্ষা করা উচিত নয়। কারণ হঠাৎ দৃষ্টিশক্তির সমস্যা স্ট্রোকের প্রাথমিক লক্ষণগুলোর একটি। তাই অবহেলা না করে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

পেটের ব্যথা ও ফোলা ভাব

যদি আপনারা পেটে অসহ্য ব্যথা হয় এবং পেট ফুলে যায়, তবে দ্রুত ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করা উচিত। কারণ পেট ফুলে যাওয়া কেবল খাবারের সমস্যার কারণে হয়- তা কিন্তু একেবারেই নয়। বরং আলসার, গ্যাস্ট্রিক অ্যালার্জির মতো কঠিন রোগের উদ্ভবের কারণেও দেখা দিতে পারে। আর পেটব্যথার পাশাপাশি যদি আপনি বমি-বমি ভাব, ডায়রিয়া, ওজন হ্রাস অনুভব করেন, তবে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করুন।

হঠাৎ শ্রবণশক্তি হ্রাস

এই ধরনের অসুখ শুধু ঠাণ্ডা লাগা বা কানে ময়লা জমে যাওয়ার কারণে যে হয়- তা কিন্তু একেবারেই নয়, হঠাৎ শ্রবণশক্তি হ্রাস অডিটরি নার্ভে টিউমার বা মাল্টিপল স্ক্লেরোসিস-এর লক্ষণও হতে পারে, তাই একে অবহেলা করা উচিত নয়।

অতিরিক্ত মাথাব্যথা

বর্তমানে মাথাব্যথা একটি স্বাভাবিক অসুখ হলেও দিনের পর দিন যদি আপনার অসহ্য মাথাব্যথা লেগেই থাকে, তবে অবহেলা না করে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। কারণ অবহেলা থেকে পরে ব্রেন টিউমার, স্ট্রোক ইত্যাদির মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে।

প্রস্রাবের সমস্যা

স্নায়ু বা কিডনির সমস্যা, হার্নিয়া বা টিউমার হওয়ার ফলে প্রস্রাবের সমস্যা দেখা দেয়। এই রোগ থেকে উপশম পেতে প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে গ্রহণ করতে পারেন প্রচুর পরিমাণে পানি পান। তবে এটিও যদি কাজ না করে তবে অবিলম্বে ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করুন।

এছাড়া এমন কিছু লক্ষণ রয়েছে যা কখনো আড়াল করা উচিত নয়, যেমন ব্রেস্ট লাম্প, টেস্টিকলস লাম্প, মলে রক্ত, ওজন হ্রাস, হঠাৎ জ্বর, গলাব্যথা বা মুখে ঘা, ক্রমাগত কাশি ইত্যাদি। শারীরিক যে কোনো সমস্যা দেখা দিলে, দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া উচিত। আর বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ খাওয়া ঠিক নয়।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে