আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৮:৫০

'নয়ন চ্যাটার্জি' পেজের মূলহোতা জিয়া হাসান!

অনলাইন ডেস্ক
'নয়ন চ্যাটার্জি' পেজের মূলহোতা জিয়া হাসান!

ফেসবুকে খুবই সক্রিয় প্রপাগান্ডা ছড়ানোর একটি পেজ 'নয়ন চ্যাটার্জি'। দীর্ঘদিন অনুসন্ধান করেও পেজটির আ্যাডমিনের হদিস মিলছিলো না। অবশেষে জানা গেল জিয়া হাসান নামের এক ব্যাক্তি হিন্দু নাম দিয়ে পেজটি চালায়।

এখানে সে হিন্দুদের বিরুদ্ধে মুসলমানদের উস্কে দিচ্ছে। সে দাবী করেছে, তার সাথে বাংলাদেশের সামরিক বাহিনী থেকে শুরু করে বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার বড় বড় কর্মকর্তার সাথে হাত রয়েছে। সে বর্তমানে ভারতে রয়েছে।

ইসলামিক জংগী সংগঠন জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) এর অংগ সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সাইবার ডিপার্টমেন্টের হয়ে কাজ করা জিয়া হাসান হিন্দু নাম দিয়ে পেজ খুলে বিভিন্ন মিথ্যে তথ্য দিয়ে হিন্দুদের বিরুদ্ধে মুসলমানদের উস্কে দিচ্ছে।

তার সম্পর্কে জানতে গিয়ে আরও জানা যায় যে, কলকাতায় যাদবপুর ইউনিভার্সিটির কমিউনিস্ট দলগুলোর সাথে সে কাজ করে। পশ্চিমবঙ্গকে বাংলাদেশের সাথে মিশিয়ে একটি বিশাল ইসলামিক রাষ্ট্র পরিণত করারও পরিকল্পনা করছে সে। সে শুধু একা নয়, তার সাথে তার বাহিনীও আছে। বলে রাখা ভালো, হিন্দুত্ববাদী আইডি ব্যবহার করে সে হিন্দু সংগঠনের গোপন ইনফরমেশনগুলো নিয়ে যাচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গকে ভারত থেকে আলাদা করার ষড়যন্ত্র করছে নয়ন চ্যাটার্জি ওরফে জিয়া হাসান। নয়ন চ্যাটার্জি ওরফে জিয়া হাসান; হিন্দু নাম দিয়ে পেজ চালানো এই ব্যাক্তি ভারতে বসবাস করেন। সে দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে হিন্দুদের বিরুদ্ধে কাজ করছে। বাংলাদেশের আনসারউল্লাহ বাংলা টিম নামক জংগী সংগঠনের সদস্য সে। যে সংগঠনের নামে হত্যা, বোমা হামলার মত মামলাও রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গকে ভারত থেকে আলাদা করে বাংলাদেশের সাথে মিশিয়ে একটি বিশাল ইসলামিক রাষ্ট্র বানাতে চাচ্ছে সে৷ শুধু সেই নয় তাদের সংগঠনে হাজারের ওপর কর্মী রয়েছে।

বাংলাদেশের মুসলমানদের নানান মিথ্যে তথ্য দিয়ে সে হিন্দুদের বিরুদ্ধে উস্কে দিচ্ছে যাতে হিন্দুরা সরকারি চাকরি থেকে শুরু করে কোনো কিছুই যাতে বাংলাদেশে করতে না পারে। পশ্চিমবঙ্গকে বাংলাদেশের সাথে মেশানোর প্রথম যে পরিকল্পনা সেটা হল ভাষা। সে পশ্চিমবঙ্গে বাংলা ভাষা নিয়ে কাজ করা একটি সংগঠনের সাথে জড়িত। সেই সংগঠনের হর্তাকর্তা ভারতীয় হলেও তারা সেকুলার হিন্দু। তারা পশ্চিমবঙ্গে বাংলা ভাষার মর্যাদা নিয়ে কাজ করছে কিন্তু তারা জানে না তাদের পেছনে যেসব মুসলমান কাজ করছে তাদের উদ্দেশ্য আসলে কি।

মূলত নয়ন চ্যাটার্জি ওরফে জিয়া হাসানদের মূল উদ্দেশ্য পশ্চিমবঙ্গ এরমধ্যে ভাষা নিয়ে একটা ঝামেলা বাধানো। তারপর তারা দাবী করবে, হিন্দি ভাষাভাষী মানুষরা বাংলা ভাষাভাষী মানুষদের দেখতে পারে না। এসব নিয়ে তারা নানান মিথ্যে গুজব সৃষ্টি করছে। এভাবে করে ধীরে ধীরে পশ্চিমবঙ্গকে ভারত থেকে আলাদা করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হিন্দু নাম দিয়ে কাজ করা জিয়া হাসানরা।

সূত্র: কেএসএফ নিউজ।

উপরে