আপডেট : ১৬ মে, ২০১৭ ১২:৫৯

ধর্ষকদের বিচার দাবি হোটেল রেইনট্রি কর্তৃপক্ষের

অনলাইন ডেস্ক
ধর্ষকদের বিচার দাবি হোটেল রেইনট্রি  কর্তৃপক্ষের

রাজধানীর বনানীতে দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি দাবি করেছে রেইনট্রি হোটেল কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার (১৬মে) বেলা ১১টায় ওই হোটেল রুমে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আসামি সাফাত আহমেদ এবং সাদমান সাকিফের বিচার দাবি করেন হোটেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আদনান হারুন।

রেইন ট্রি হোটেলে ধর্ষণ কাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সাফাত ও সাদমানের বিচারের দাবি জানিয়ে লিখিত বক্তব্য তুলে ধরেন আদনান হারুন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করেন, হোটেলের বিরুদ্ধে ব্যাপক অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। এতে শুধু রেইনট্রি হোটেল নয়, ক্ষতি হবে দেশের পর্যটন খাতের। কেননা রেইনট্রি হোটেল আন্তর্জাতিক মানের। এখানে প্রচুর বিদেশী পর্যটকও আসেন।

তিনি জানান, হোটেল ব্যবস্থাপনায় কোথাও ৩০ দিনের বেশি সিসিটিভ ফুটেজ সংরক্ষণ করা হয় না। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেল ১৫ দিন এবং প্যান প্যাসিফিক, র‌্যাডিসন ও ওয়েস্টিন ৩০ দিন পর্যন্ত ভিডিও ফুটেজ সংরক্ষণে রাখে। আমাদের এখানেও ৩০ দিন ভিডিও ফুটেজ সংরক্ষণে থাকে। এরপর রেকর্ড অটো মুছে গিয়ে তাতে নতুন ডাটা সংরক্ষিত হয়। তাই ইচ্ছাকৃতভাবে অপরাধীদের সহায়তায় ভিডিও ফুটেজ মুছে ফেলার অভিযোগ পুরোপুরি অপপ্রচার। 

হোটেলে অভিযান নিয়েও প্রশ্নও তুলেন আদনান। তিনি জানান, প্রথম অভিযানে কিছুই পায়নি তদন্তকারী দল। পরে কিভাবে ১০ বোতল মদ পেলো সেটা আমাদের বোধগম্য হচ্ছে না।

তবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করলেও সাংবাদিকদের প্রশ্নের কোন উত্তর দিতে রাজি হননি ব্যবস্থাপনা পরিচালক আদনান হারুন।

২৮ মার্চ বন্ধুর সঙ্গে জন্মদিনের অনুষ্ঠানে গিয়ে বনানীর ‘দি রেইনট্রি’ হোটেলে ধর্ষণের শিকার হন বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া দুই তরুণী। ওই ঘটনায় ৬ মে রাজধানীর বনানী থানায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদ, নাঈম আশরাফ (সিরাজগঞ্জের আবদুল হালিম) ও সাদমান সাকিফসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন তারা।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে