আপডেট : ৫ মে, ২০২১ ২৩:১৬

সুন্দরবনে অগ্নিকাণ্ড, তদন্তের দাবি সাইফুল হকের

অনলাইন ডেস্ক
সুন্দরবনে অগ্নিকাণ্ড, তদন্তের দাবি সাইফুল হকের

বিশ্ব ঐতিহ্যের অপরূপ নিদর্শন হিসাবে সুন্দরবনের রয়েছে অনন্য পরিচিত। যা শুধু বাংলাদেশ নয়, পুরো বিশ্ব সভ্যতার জন্য ঈশ্বরের উপহার স্বরূপ। এই ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবনে গত ২০ বছরে অন্তত ২৫ বার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক। গত ৪৮ ঘণ্টার ব্যবধানে আবারও আগুন লাগার ঘটনায় তিনি অবিলম্বে তদন্তের দাবি জানিয়েছেন।

বুধবার (৫ মে) বিকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সাইফুল হক এসব কথা বলেন।

সাইফুল হক তাঁর বিবৃতিতে সুন্দরবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, ‘৪৮ ঘণ্টার ব্যবধানে সুন্দরবনে আবারও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে কায়েমি স্বার্থান্বেষীরাই এসব অগ্নিকাণ্ডের জন্য দায়ী। বনবিভাগের একশ্রেণীর কর্মচারীদের প্রশ্রয় ও ছত্রছায়ায় এসব অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে বলে মনে করা হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বনভূমির অবৈধ দখলসহ নানা কারণে আগুন দেয়ার ঘটনা সংঘটিত হচ্ছে। গেল ৮ ফেব্রুয়ারিও সুন্দরবনে আগুন লাগে। গত বিশ বছরে ২৫ বার সুন্দরবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এসব অগ্নিকাণ্ডে কয়েকশ একর বন পুরোপুরি পুড়ে যায়।’

সাইফুল হক বলেন, ‘দেশের মানুষ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মতামত ও বিরোধিতা উপেক্ষা করে রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প সুন্দরবনের অস্তিত্বই বিপন্ন করার আশঙ্কা তৈরি করেছে। কয়লাভিত্তিক এই বিদ্যুৎ প্রকল্প দেশের দক্ষিণাঞ্চলের প্রাণ-প্রকৃতি-জীব বৈচিত্র্য ধ্বংস করবে, দক্ষিণাঞ্চলের মাটি, পানি ও বায়ুকেও বিষাক্ত করে তুলবে।’

উপরে