আপডেট : ১৭ এপ্রিল, ২০২১ ২২:৪১

জাবির সাবেক অধ্যাপক তারেক শামসুর রেহমানের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক
জাবির সাবেক অধ্যাপক তারেক শামসুর রেহমানের মৃত্যু


বেডরুমের বাথরুমের সামনে মেঝেতে রক্ত ও বমির উপর মুখ থুবড়ে পড়েছিল জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ও দেশের প্রখ্যাত রাজনৈতিক বিশ্লেষক তারেক শামসুর রেহমানের মরদেহ। 

শনিবার দুপুরে রাজধানীর উত্তরার দিয়াবাড়ী এলাকার ১৮ নম্বর সেক্টরের রাজউক অ্যাপার্টমেন্ট প্রজেক্টের ৪ নম্বর সড়কের ১২/এ দোলনচাঁপা ভবনের ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করে। ওই ফ্ল্যাটে তিনি একাই থাকতেন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, হার্টঅ্যাটাকে তার মৃত্যু হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশের বর্ণনা অনুযায়ী, বাথরুমের দরজার সামনে রক্ত ও বমির উপর পড়েছিল ড. তারেক শামসুর রেহমানের মরদেহ। তার পা দুটি ছিল বাথরুমের ভেতরে, শরীরের বাকি অংশ দরজার সামনে। তার পরনে ছিল সাদা রঙের স্যান্ডো গেঞ্জি ও কালো রঙের প্যান্ট। ডান পায়ে একটি মোজা পরা ছিল। তারেক শামসুর রেহমানের মরদেহের আশপাশে অনেক রক্তও দেখতে পান প্রত্যক্ষদর্শীরা। ডায়বেটিস, হৃদরোগ-রক্তচাপসহ কিছু জটিল রোগে ভুগছিলেন তিনি । 

এদিকে একা বাসায় থাকা এবং হঠাৎ মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখবে পুলিশ। চুরি-ডাকাতি বা ব্যক্তিগত বিরোধ থেকে তাকে হত্যা বা অন্য কোনো বিষয় আছে কিনা সেটি তদন্ত করা হবে।

ডিএমপির উত্তরা জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) শচীন মল্লিক গণমাধ্যমকে জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা কর হচ্ছে- অধ্যাপক শামসুর রেহমানের হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল। তবে সব বিষয়কে সামনে রেখেই তদন্ত করা হচ্ছে। সিআইডির ক্রাইম সিন এসে আলামত সংগ্রহ করেছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) মর্গে পাঠানো হবে।

উপরে