আপডেট : ৮ এপ্রিল, ২০১৬ ২০:৩১

শুধু ব্লগার নয়, দেশে ইমাম-মুয়াজ্জিনরাও হুমকিতে

বিডিটাইমস ডেস্ক
শুধু ব্লগার নয়, দেশে ইমাম-মুয়াজ্জিনরাও হুমকিতে

আজকে শুধু ব্লগার, লেখক-প্রকাশক বা ইমাম-মুয়াজ্জিন-পুরোহিত নয়, দেশের প্রত্যেক মানুষই অনিরাপদ বলে মন্তব্য করেছেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার। তিনি বলেন, ‘এখন অপরাধীদের বিচার হয় না। যারা অপরাধের প্রতিবাদ করেন তাদেরকে লাশ হতে হয়।’

শুক্রবার শাহবাগ প্রজন্ম চত্বরে প্রতিবাদী সংহতি সমাবেশে বক্তব্যদান কালে তিনি একথা বলেন।

সমাবেশে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার বলেন, ‘রিজার্ভ লুট, তনু হত্যাকাণ্ড, সেই হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদকারী নাজিমুদ্দিন হত্যা, কোনো ঘটনারই বিচারের কোনো খবর নেই। কুমিল্লায় প্রতিবাদকারী সোহাগকে অপহরণের ১১ দিন পেরিয়ে গেছে, তারও কোনো সন্ধান নেই। একের পর এক ঘটনা ধামাচাপার যে সংস্কৃতি শুরু হয়েছে, তা বিচারহীনতার অপসংস্কৃতিকে স্থায়ী রূপ দিচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘জনগণ বুঝে গেছে, একটি ঘটনা ঘটলে তাকে আড়াল করার জন্য কিছুদিনের মধ্যেই আরেকটি ঘটনা ঘটানো হবে। যখন একের পর এক হত্যাকাণ্ড চলছে, তখন সেসবের বিচার না করে, মানুষকে অনিরাপদ করে রেখে সাফল্যের পরিসংখ্যান দেখানোর মানে জনগণের সাথে প্রতারণা।’

বিচারপ্রার্থীদের হেনস্তার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘তনুর বাবা-মাকে তদন্তের নামে যেভাবে হেনস্তা করা হলো, তাতে এই বার্তা দেয়া হলো, যেন মানুষ অন্যায়ের বিচার না চায়।’

ইমরান এইচ সরকার বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা মানে ধর্ষক, লুটেরাদের পক্ষ নেয়া নয়। আমাদের পূর্বসূরিরা, মুক্তিযোদ্ধারা এদেশের আড়াই লক্ষ নারীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে, অবিচার, শোষণের প্রতিবাদে যুদ্ধ করেছে। তরুণদের সামনে দৃষ্টান্ত হচ্ছেন তারা। আজকে তরুণ প্রজন্মকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে, তারা কাদের অনুসরণ করবে। ধর্ষক-লুটেরাদের বিরুদ্ধে রাস্তায় এসে প্রতিবাদ করাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা।’

সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন শম্পা বসু, ভাস্কর রাসা, ইমরান হাবিব রুমন, লাকি আক্তার, মুশতাক আহমেদ, গৌতম ঘোষ প্রমুখ। সমাবেশ শেষে গণজাগরণ মঞ্চের মিছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি ঘুরে আবার শাহবাগে এসে শেষ হয়।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

উপরে