আপডেট : ১ আগস্ট, ২০১৬ ২২:১২

ডাইনি সন্দেহে মহিলাকে উলঙ্গ করে মূত্র খেতে বাধ্য করলো তারা!

অনলাইন ডেস্ক
ডাইনি সন্দেহে মহিলাকে উলঙ্গ করে মূত্র খেতে বাধ্য করলো তারা!

মাত্র কয়েকদিন আগেই ১৫ টাকা মেটাতে না পারার অপরাধে ভারতের উত্তরপ্রদেশের এক দলিত দম্পতিকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়৷ তার রেশ কাটতে না কাটতেই দলিত মহিলার উপর আক্রমণ নেমে আসল বিহারে৷ ডাইনি সন্দেহে বিহারের দ্বারভাঙায় এক মহিলাকে উলঙ্গ করে গ্রামে ঘোরানোর অভিযোগ ওঠে গ্রামেরই চার ব্যক্তির বিরুদ্ধে৷ শুধু তাই নয়, মহিলার অভিযোগ ওই চার ব্যক্তি তাঁকে জোর করে নিজের মূত্র খেতেও বাধ্য করে৷

এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে বিহারে৷ পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, স্বামীর অনুপস্থিতিতে তাঁর বাড়িতে আক্রমণ করে ১১ জন গ্রামবাসী৷ স্থানীয় এক যুবক গত কয়েকদিন আগে অসুস্থ হয়ে মারা যান৷ আর গ্রামবাসীরা সেই মৃত্যুর কারণ হিসাবে দলিত মহিলার ‘ডাইনি বিদ্যা’-কে দোষারোপ করেছে৷

মহিলার দাবি, দমু যাদব, সন্তোষ যাদব, বাচ্চেলাল যাদব-সহ ৪ জন ব্যক্তি অন্যান্য গ্রামবাসীদের সঙ্গে নিয়ে মহিলাকে আক্রমণ করে৷ তাঁকে উলঙ্গ করে গ্রামের রাস্তায় হাঁটতে বাধ্য করা হয়৷ শুধু তাই নয়, নিজের মূত্র পর্যন্ত খেতে বাধ্য করা হয় তাঁকে৷

বিহারের এই ঘটনা ভারতে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার তথ্যটিকে আরও জোড়ালো করে তুলল৷ ভিন্ন মহলে এই ঘটনাটির তীব্র নিন্দা করা হয়েছে৷ কংগ্রেস নেত্রী শোভা ওঝা বলেছেন, “এমন ঘটনা মনে প্রশ্ন আনে আমরা আদৌ একবিংশ শতাব্দীতে বাস করি কিনা৷”

এর পাশাপাশি, ক্রমাগত দলিতদের উপর নেমে আসা আক্রমণের বিরুদ্ধে বিজেপি’র নিষ্ক্রিয় থাকা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে সচেতন মহলগুলিতে৷

উপরে