আপডেট : ১২ মে, ২০১৬ ২০:৫৫

বিয়ের সাহায্যকারীকে গুলি করে হত্যা

আন্তরজাতিক ডেস্ক
বিয়ের  সাহায্যকারীকে গুলি করে হত্যা

পছন্দের ছেলেকে বিয়েতে সাহায্য করায় গুলি করে হত্যা করা হলো এক সাংবাদিককে। পরিবারের অনুমিত ছাড়া ওই তরুণী বিয়ে করেন এবং এ কাজে সাহায্যকারী ব্যক্তিকে তাদের পরিবারের লোকজন মিলে খুন করেছে।

 

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে এ হত্যাকাণ্ডের পর বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। ওই সাংবাদিকের নাম আজমল জইয়া।

 

টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইনের এক খবরে বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

 

ত্রিশোর্ধ্ব আজমল জইয়া পাঞ্জাব প্রদেশের লোধরান জেলায় নিজ এলাকায় মোটরসাইকেল নিয়ে যাওয়ার সময় তার ওপর হামলা চালায় তরুণীর তিন আত্মীয়। তারা তাকে গুলি করে এবং এতে তিনি নিহত হন। মোটরসাইকেলে আজমল জইয়ার চাচাতো ভাই ছিলেন, যিনি এ হামলায় আহত হন।

 

লোধরান জেলা পুলিশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। পুলিশ জানিয়েছে, পরিবারের ঘোর আপত্তির কারণে পছন্দের ছেলেকে বিয়ে করতে পারছিলেন না ওই তরুণী। আজমল জইয়া তাকে আশ্বস্ত করেন, কোনো সমস্যা হলে তিনি জেলা প্রশাসনের কাছে নিয়ে যাবেন তাদের। সেইমতো প্রশাসনের নিরাপত্তায় তাদের বিয়ে হয়।

 

তিন হত্যাকারীর মধ্যে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বাকি দুজনকে ধরতে অভিযান চলছে। অন্যদিকে পাঞ্জাব প্রদেশের বিভিন্ন শহরের সাংবাদিকরা এ হত্যাকা-ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করছেন।

 

পাকিস্তানে ‘অনার কিলিং’ সাধারণ ঘটনা। ভারতেও অনার কিলিংয়ের ঘটনা ঘটে। পরিবারের অনুমতি ছাড়া যদি ছেলেমেয়েরা তাদের পছন্দের কাউকে বিয়ে করেন অথবা কোনো সম্পর্ক গড়ে তোলেন, তাহলে সম্মান হারানোর ভয়ে পরিবারের লোকজন তাদের হত্যা করে। একে বলে অনার কিলিং।

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এমএইচ

উপরে