আপডেট : ২৩ এপ্রিল, ২০২১ ২১:১৫

করোনা টিকা চুরি, চিঠিতে ক্ষমা চেয়ে টিকা ফেরত

অনলাইন ডেস্ক
করোনা টিকা চুরি, চিঠিতে ক্ষমা চেয়ে টিকা ফেরত

করোনাভাইরাসের ১৭০০ ডোজ টিকা চুরি হয় গতকাল বৃহস্পতিবার। কিন্ত পরেরদিন আজ শুক্রবার আবার ফেরত পাওয়া গেল সেই টিকা। সঙ্গে একটি চিঠিও পাওয়া গেছে। ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের জিন্দ জেলায় এ ঘটনা ঘটেছে। গতকাল ওই রাজ্যে করোনার টিকা চুরি হওয়ার পর উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। কারণ চোর হাসপাতালের পুরো টিকার ভাণ্ডার খালি করে দিয়েছিল। এমনিতেই করোনা রোগীর সেবায় পর্যাপ্ত ওষুধ নেই, অক্সিজেন নেই। তারপর যদি টিকাও না থাকে, সেটি বড় চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়ায় স্বাস্থ্য কর্মীদের জন্য। তবে একদিন পরই তাদের সেই চিন্তার অবসান হয়েছে।

জানা গেছে, জিন্দের পিপি সেন্টার জেনারেল হাসপাতালের স্টোর রুমে রাখা ছিল ১ হাজার ৭১০টি টিকার ডোজ। তাতে কোভ্যাক্সিন এবং কোভিশিল্ড দুই রকম টিকাই ছিল। গতকাল বৃহস্পতিবার হাসপাতালের স্টোর রুম খুলে দেখা যায়, সেখানে একটি টিকার ভায়ালও নেই। স্টোর রুমের দরজা ভেঙে টিকার পেটি চুরি করা হয়েছে। তবে অন্য ওষুধ বা যন্ত্রপাতির কোনো ক্ষতি করেনি চোর।

এরপর পুলিশকে ঘটনাটি জানানো হয়। তদন্তে নামে পুলিশ। জানতে পারে, হাসপাতালের ওই স্টোর রুমে কোনো সিসিটিভি ক্যামেরাও ছিল না। ছিল না নিরাপত্তা রক্ষীও। এ অবস্থায় টিকা ফেরত পাওয়ার আশাও ছেড়ে দিয়েছিলেন অনেকে।

তবে ২৪ ঘণ্টা না পেরতেই সব টিকা ফেরত দিয়েছে চোর। জানা গেছে, একটুও নষ্ট হয়নি করোনার টিকা। ওই চোর টিকা ফেরাত দিয়ে চিঠি লিখে রেখে গেছেন। তাতে লেখা, ‘ক্ষমা করবেন, জানতাম না এখানে করোনার ওষুধ আছে’।

সূত্র: আনন্দবাজার।

উপরে