আপডেট : ৭ নভেম্বর, ২০১৭ ১৪:৫৭

মেঝেতে কম্বলমুড়ি দিয়ে ঘুমাচ্ছেন আটক সৌদি রাজপুত্ররা

আন্তর্জাতিক
মেঝেতে কম্বলমুড়ি দিয়ে ঘুমাচ্ছেন আটক সৌদি রাজপুত্ররা

সম্প্রতি সৌদি আরবের ১১ রাজপুত্র, একাধিক মন্ত্রী ও ব্যবসায়ীকে দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়। সৌদি আরবের আধুনিক ইতিহাসের সবচেয়ে বড় আকারের ধরপাকড় হিসেবে এটিকে অভিহিত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (০৭ নভেম্বর) সকালে ব্রিটেনের সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল একটি ছবি প্রকাশ করেছে। এতে দেখা গেছে রিয়াদের পাঁচ তারকা ‘বিলাসবহুল’ রিটজ কার্লটন হোটেলে আটক হওয়া রাজপুত্র ও মন্ত্রীদের পাতলা গদির ওপর কম্বলমুড়ি দিয়ে ঘুমাতে দেখা গেছে।

গত মাসে এই হোটেলেই আন্তর্জাতিক বিনিয়োগ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। যাদের গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তিদের অনেকেই সৌদি আরবের রাজপরিবারের গর্বিত সদস্য হিসেবে অংশ নিয়েছিলেন। এতে বিভিন্ন দেশের ব্যবসায়িক ব্যক্তিত্বরাও যোগ দিয়েছিলেন।

‘দুর্নীতির অভিযোগে’ সৌদি আরবের সাম্প্রতিক এ ধরপাকড়কে বাদশাহ সালমানের ছেলে ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিল সালমানের ক্ষমতায় সুসংহত হওয়ার ক্ষেত্রে বড় পদক্ষেপ হিসেবেই দেখা হচ্ছে। দুর্নীতিবিরোধী অভিযানে জাতীয় প্রতিরক্ষা ও নৌবাহিনী প্রধানদেরও গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার হওয়া রাজপুত্রদের মধ্যে ১৮ বিলিয়ন ডলারের মালিক ও বর্তমান রাজা সালমানের ভাইপো আল-ওয়ালিদ বিন তালালও আছেন। মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে ধণাঢ্য ব্যক্তি এ আল-ওয়ালিদ বিন তালাল।

টুইটার, লিফট ও সিটিগ্রুপের মতো প্রতিষ্ঠানের মালিকানায় তার অংশীদারিত্ব আছে। অথচ এখন নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে অজানা আশঙ্কায় দিন পার করছেন তিনি। ঘুমানোর জন্য একটা খাটও পাননি। মেঝেতে অন্যান্যদের সঙ্গে দিন-রাত পার করছেন।

এই ছবিটি প্রকাশিত হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইট করেছেন। তিনি গ্রেফতারের আদেশ দেয়া ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিল সালমানের (৩২) প্রতি পূর্ণ সমর্থনের কথা ব্যক্ত করেছেন। জাপান সফর শেষে দক্ষিণ কোরিয়া যাচ্ছেন ট্রাম্প।

সফরের প্রাক্কালে টুইটারে ট্রাম্প লিখেছেন, ‘সৌদি আরবের রাজা সালমান ও ক্রাউন প্রিন্সের প্রতি আমার পূর্ণ আত্মবিশ্বাস আছে। তারা জানে, তারা কী করছে। কিছু কিছু লোক বছরের পর বছর ধরে দেশটাকে রূঢ়ভাবে শোষণ করে আসছে।’

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে