আপডেট : ১৯ জুলাই, ২০১৭ ১৪:৪৩

মামার বিকৃত লালসার শিকারে অন্তঃসত্ত্বা ১০ বছরের ভাগ্নি!

অনলাইন ডেস্ক
মামার বিকৃত লালসার শিকারে অন্তঃসত্ত্বা ১০ বছরের ভাগ্নি!

বাবা সরকারী চাকরিজীবী, মা পরিচারিকার কাজ করেন। খালি বাড়ির সুযোগ নিয়েই এক গর্হীত কাজ করে ১০ বছরের মেয়েটির আত্মীয়। এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, মেয়েটির মামা তাকে বেশ কয়েকবার ধর্ষণ  করে। যার ফলস্বরূপ মেয়েটি অন্তঃসত্ত্ব হয়ে যায়। বর্তমানে, মেয়েটির গর্ভাস্থ শিশুর বয়স হয়ে গিয়েছে ২৬ সপ্তাহ। যে কারণে, চণ্ডীগড়ের জেলা আদালত মেয়েটির গর্ভপাতের পক্ষে রায় দেয়নি।

প্রসঙ্গত, মেডিক্যাল টার্মিনেশন অফ প্রেগনেন্সি অ্যাক্ট অনুযায়ী, ২০ সপ্তাহের কম সময় হলে, হবেই করানো যেতে পারে গর্ভপাত। কিন্তু, এই ঘটনায় যারপরনাই আশ্চর্য হয়েছেন চিকিৎসক মহল। চণ্ডীগড়ের পোস্ট গ্যাজুয়েট ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ-এর স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ রেশমি বাগ্গা, সংবাদ মাধ্যমে দেওয়া খবরে বলেছেন যে, ১০ বছরের কোনও মেয়ে যে অন্তঃসত্ত্বা হতে পারে তা তিনি আগে দেখেননি।

উমেশ জিন্দল নামে আরও এক নামী স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন যে, তাঁর ৪০ বছরের চিকিৎসা জীবনে তিনি এমন কেস দেখেননি। প্রসঙ্গত, চলতি বছরের মে মাসে, রোহতাকেও একটি ১০ বছরের কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হলে, স্থানীয় কোর্ট তার গর্ভপাতের সপক্ষে রায় দিয়েছিল। এ ক্ষেত্রে মেয়েটি ১৮ থেকে ২২ সপ্তাহের গর্ভবতী ছিল।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে