সেলিব্রেটিদের লজ্জা হওয়া উচিতঃ নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি | BD Times365 সেলিব্রেটিদের লজ্জা হওয়া উচিতঃ নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি | BdTimes365
logo
আপডেট : ২৫ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:১২
সেলিব্রেটিদের লজ্জা হওয়া উচিতঃ নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি
অনলাইন ডেস্ক

সেলিব্রেটিদের লজ্জা হওয়া উচিতঃ নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি

ভারতে করোনা মহামারী খুবই ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। চরম সঙ্কটে পড়েছে দেশটির স্বাস্থ্যখাত। অনেকেই খেতে পারছে না, চিকিৎসা নিতে পারছে অর্থের অভাবে। এমন মহামারীর সময়ে ভারতের বিভিন্ন শোবিজ ইন্ডাস্ট্রির তারকারা ঘুরে বেড়াচ্ছেন মালদ্বীপে।

তবে শুধু ঘুরতে যাওয়াই নয়, সেই সব ছবি নিয়মিত সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টও করছেন তাঁরা। আর তাতে লাইক-কমেন্টের বন্যা বইয়ে দিচ্ছেন ভক্ত-অনুসারীরা। কিন্তু এমন অসংবেদনশীল আচরণের জন্যও সমালোচিতও হচ্ছেন তারকারা।

এই বিষয়েই এবার তীব্র আপত্তি জানালেন বলিউড অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি। তাঁর কথায়, দেশের মানুষ খেতে পারছেন না, আর তারকারা এভাবে টাকা নষ্ট করছেন। এবার অন্তত তাঁদের লজ্জা পাওয়া উচিত।
 
সম্প্রতি ছুটি কাটাতে মালদ্বীপ গিয়েছেন জাহ্নবী কাপুর, শ্রদ্ধা কাপুর, দিশা পাটানির মতো বলিউড অভিনেত্রীরা। শুধু ঘুরতে যাওয়াই নয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় উষ্ণ ছবিও পোস্ট করেছেন তাঁরা। আর এক সাক্ষাৎকারে সরাসরি এই বিষয়টি নিয়েই মুখ খুললেন নওয়াজ। ক্ষুব্ধ এই বলিউড অভিনেতা বলেন, এই তারকারা এমন সময়ে তাঁদের ছুটি কাটানোর ছবি পোস্ট করছেন যখন গোটা পৃথিবীর খারাপ একটা সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। মানুষ খেতে পারছে না আর আপনারা টাকা ওড়াচ্ছেন! এবার অন্তত আপনাদের একটু লজ্জা পাওয়া উচিত!’

নওয়াজের মতে, এই পরিস্থিতিতে বিদেশে ছুটি কাটাতে যাওয়ার মধ্যে অন্যায় কিছু নেই। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রত্যেকদিন ছবি পোস্ট করাটা অবশ্যই অন্যায়। তাঁর মতে আসলে এই সেলেবদের করার মতো কোনো কাজ নেই। তাই তাঁরা এই কাজ করছেন। নওয়াজের কথায়, 'ছবি পোস্ট করা ছাড়া এঁরা আর কী করবে? কী নিয়েই বা কথা বলবে। অভিনয়? সে বিষয়ে তো দুই মিনিটের বেশি কথাও বলতে পারবে না'। 

ভারতীয় তারকাদের বেশিরভাগই অবকাশযাপনের জন্য যাচ্ছেন দ্বীপরাষ্ট্র মালদ্বীপে। নওয়াজ বলেন, এসব লোক মালদ্বীপকে তামাশা বানিয়ে ছেড়েছে। মানবতার জন্য এসব অবকাশযাপন নিজের মধ্যেই রাখা উচিত। সবখানে মানুষ অতিকষ্টে দিনযাপন করছে। করোনা সংক্রমণের হার ঊর্ধ্বমুখী। বিবেক খরচ করে কাজ করুন। যাদের দিন পার করতেই কষ্ট হচ্ছে তাদের জ্বালা আর বাড়াবেন না। ভারতের বিনোদনজগতের মানুষদের আরও বেশি পরিপক্ক আচরণের অধিকারী হওয়া প্রয়োজন বলেও মনে করেন নওয়াজ।