করোনা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সবার চেয়ে এগিয়ে মাশরাফি-তন্ময় | BD Times365 করোনা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সবার চেয়ে এগিয়ে মাশরাফি-তন্ময় | BdTimes365
logo
আপডেট : ৪ এপ্রিল, ২০২০ ০৯:২৬
করোনা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সবার চেয়ে এগিয়ে মাশরাফি-তন্ময়
অনলাইন ডেস্ক

করোনা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সবার চেয়ে এগিয়ে মাশরাফি-তন্ময়

ডাক্তারের কাছে রোগী নয়, এবার রোগীর কাছে ছুটে যাবেন ডাক্তার’-করোনার দিনগুলোতে সাধারণ মানুষের চিকিৎসা পদ্ধতি সহজ করতে এমনি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে নড়াইল ও বাগেরহাট জেলায়। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় গোটা বিশ্ব হিমশিম খাচ্ছে। বিভিন্ন দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা ভেঙে পড়ছে। বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল।

বাংলাদেশও এর বাইরে নয়। এখন পর্যন্ত দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৬১ আর মৃতের সংখ্যা ৬ জন। এমন পরিস্থিতিতে দুই তরুণ সংসদ সদস্যের দারুণ সব উদ্যোগ মুগ্ধ করবে যে কাউকে।বাগেরহাট-২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৌহিত্র শেখ সারহান নাসের তন্ময় ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মুর্তজা এমন উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন নিজ নিজ সংসদীয় আসনে।

নানাবিধ সমস্যায় জর্জরিত নড়াইল জেলায় এক প্রকার চ্যালেঞ্জ নিয়ে এই মহতী উদ্যোগ নিয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। যে নড়াইল জেলায় চিকিৎসক ও চিকিৎসা সেবার পর্যাপ্ত অপ্রতুলতা রয়েছে, সেখানে এমন পদক্ষেপ একমাত্র মাশরাফি বিন মুর্তজাই বাস্তবায়ন করতে পেরেছেন।

সাংসদ নড়াইলের মানুষের কথা বিবেচনা করে এরইমধ্যে ডাক্তারদের সুরক্ষার্থে ৫০০ পিপিই দিয়েছেন। সঙ্গে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম চালু করেছেন। এছাড়াও সরকারি ও নিজস্ব তহবিল থেকে দুজনই নিজেদের আসনে দরিদ্র ও কর্মহীন হয়ে পড়া পরিবারগুলোকে খাদ্য সরবরাহ করে আসছেন শুরু থেকেই।

সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ নিয়ম মতো সেবা নিয়ে সার্বিক সহযোগিতা করলে সকলের দোরগোড়ায় পৌঁছে যাবে এই সেবা। এমন উদ্যোগ বাস্তবায়ন করায় সবক্ষেত্রেই সামনে থেকে কাজ করছে মাশরাফি বিন মুর্তজার গড়া ‘নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন’।

এ নিয়ে মাশরাফি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারনে অন্যান্য সমস্ত ধরনের অসুখে যারা অসুস্থ তারাও আজ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন, তাদের এই কষ্ট কিছুটা লাঘবের জন্য মাঠে নামছে নড়াইল এক্সপ্রেসের “ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল টিম”, রবিবার থেকেই এই টিমটি নড়াইল ও লোহাগড়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলে চিকিৎসা সেবায় নিয়জিত থাকবে।

শেখ তন্ময় তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে লিখেছেন, করোনা প্রতিরোধের লক্ষ্যে সম্প্রতি বিদেশ ফেরত এবং তাদের সংস্পর্শে আসা সকলকে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকার জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। এক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন ও স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষকে আপনার অবস্থান সম্পর্কে অবহিত করুন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/ধ্রুব