চাঁদে এলিয়েনদের অবতরণ, শিগগিরই আসছে পৃথিবীতে! | BD Times365 চাঁদে এলিয়েনদের অবতরণ, শিগগিরই আসছে পৃথিবীতে! | BdTimes365
logo
আপডেট : ১৪ অক্টোবর, ২০১৬ ১২:২৫
চাঁদে এলিয়েনদের অবতরণ, শিগগিরই আসছে পৃথিবীতে!
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

চাঁদে এলিয়েনদের অবতরণ, শিগগিরই আসছে পৃথিবীতে!

বিভিন্ন গবেষণায় এটা এখন প্রমাণিত যে ভিনগ্রহে প্রাণীদের অস্তিত্ব রয়েছে এবং সত্যিই এটা রয়েছে। অন্য কোনো মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নয়, স্বয়ং নাসার তোলা ছবিতেই দেখা গেছে একটি অস্বাভাবিক বস্তুকে (ইউএফও) চাঁদের বিশাল গর্তে অবতরণ করতে।

একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ ও ছবি অনুযায়ী, চাঁদে অবতরণ করতে দেখা গিয়েছে ইউএফওটিকে। অনেকটা মিসাইলের মতো এর গঠন।

১৯৬৯ সালের ২০ জুলাই অ্যাপোলো ১১ মিশনের সময়েই ছবিটি তোলা হয়েছিল। তবে আশ্চর্যজনকভাবে ছবির মধ্যে একটি ছোট জিনিস এতদিন সবার নজর এড়িয়ে গিয়েছিল। এবার সেই জিনিসটি চোখে পড়তেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বৈজ্ঞানিক মহলে।

মনে করা হচ্ছে, বাজ অলড্রিন বা নিল আর্মস্ট্রং-এর মধ্যে কেউ তুলেছিলেন ছবিটি। ছবিটি প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে বিভিন্ন মহলে। অনেকে মনে করছেন, নাসার থেকে উৎক্ষেপিত কোনো মিসাইলের ছবিই ধরা পড়েছে ক্যামেরায়। অনেকে আবার সে যুক্তি মানতে নারাজ।

তাদের মতে, এত বছর আগে চাঁদে নাসা মিসাইল পাঠায়নি। ১৯৫৯ সালে রাশিয়ার লুনা ২ সর্বপ্রথম চাঁদের কক্ষপথে প্রবেশ করেছিল। তার ১০ বছর পর অ্যাপোলো ১১ আবার চাঁদের কক্ষপথে প্রবেশ করে। তাই এর মধ্যে সেখানে অন্য কোনো মহাকাশযান বা মিসাইল আসবেই বা কী করে! সবমিলিয়ে বিষয়টি নিয়ে কৌতূহল ক্রমশ বাড়ছে। নাসার পক্ষ থেকে ছবিটি প্রকাশ্যে আনা হলেও এ বিষয়ে আর কোনো তথ্য দেয়া হয়নি।

প্যারানরমাল ক্রুকিবেল নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে কিছুদিন আগেই প্রকাশিত হয়েছিল একটি ভিডিও। সেখানে দেখা গেছে কিছু মিসাইলকে, যেগুলো চাঁদের কক্ষপথ ধরে উড়ে যাচ্ছে। অনেকে এ বিষয়ে মন্তব্য করেছেন, চাঁদে বেশ কিছু এলিয়েন ঘাঁটি ধ্বংস করতেই নাসা পৃথিবী থেকে মিসাইলগুলো পাঠাচ্ছে।

তাই প্রশ্ন উঠছে, যদি বা ভিনগ্রহে প্রাণী থেকে থাকে, তারা কি মানব সভ্যতার জন্য ক্ষতিকারক? যদিও নাসার পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। বলা বাহুল্য, যদি চাঁদে সত্যিই ভিনগ্রহের প্রাণীরা পৌঁছে থাকে, তবে পৃথিবীতে আসতেও আর বেশি দেরি নেই তাদের।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম