বাংলাদেশের আলিবাবা ‘সিন্দাবাদ ডটকম’ | BD Times365 বাংলাদেশের আলিবাবা ‘সিন্দাবাদ ডটকম’ | BdTimes365
logo
আপডেট : ৬ জুন, ২০১৬ ০৮:৩৯
বাংলাদেশের আলিবাবা ‘সিন্দাবাদ ডটকম’
অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশের আলিবাবা ‘সিন্দাবাদ ডটকম’

এক ছাদের নিচে কেনাকাটা করতে কার না ভালো লাগে? রাজধানীর যে যানজট, এতে সুপার শপের চিন্তাটা বেশ যুগোপযোগী। কিন্তু ভবিষ্যতে মার্কেটে গিয়ে কেনাকাটা করাটাও মানুষের জন্য কষ্টকর হয়ে যাবে। যানজট তো আছেই, উন্নয়নশীল দেশে মানুষের সময় বের করে কেনাকাটা করাটাও কষ্টকর। উন্নত দেশে অবশ্য ইতোমধ্যে মানুষ ঘরে বসে সব কেনাকাটার ব্যবস্থা করে ফেলেছে। বিশ্বজুড়ে ই-বে, অ্যামাজন, আলিবাবা, ফ্লিপকার্ট এবং স্ন্যাপডিলের মতো ই-কমার্স সাইটগুলোতে মানুষ পাচ্ছে অনলাইন কেনাকাটার প্রকৃত স্বাদ। বাংলাদেশেও কি এ ধরণের সেবা পাওয়া সম্ভব? 

দেশে অনেক ই-কমার্স সাইট থাকলেও বিজনেস টু বিজনেস বা ব্যবসায়িক ই-কমার্স সাইট ছিলো না। জিরো গ্র্যাভিটি ভেঞ্চারস লিমিটেডের অধীনে বাংলাদেশে যাত্রা শুরু হলো সিন্দাবাদডটকমের। এই ওয়েবসাইটে খুচরা কেনাকাটা সহ পাইকারি কেনাকাটার ব্যবস্থাও রয়েছে। যে কোন সময় যে কোন জায়গা থেকে পছন্দ মতো যে কোন কিছু অর্ডার করলেই আপনার কাজ শেষ। পণ্য পৌঁছে যাবে আপনার দোরগোড়ায়। 

অফিসে টিস্যু দরকার অথবা স্ট্যাপলার মেশিন দরকার। এসব ছোটখাট জিনিস কি আবার ওয়েবসাইটে মেলে? আগুন নেভানোর যন্ত্র বা ওয়াইফাই রাউটার অথবা বি আর বি ক্যাবল এগুলো কিনতে তো মার্কেটে যাওয়ার বিকল্প নেই। চিন্তা নেই আপনার সুবিধার কথা মাথায় রেখে অফিস স্টেশনারি থেকে শুরু করে কম্পিউটার ও আইটি সংক্রান্ত পণ্য, নিরাপত্তার কাজে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি, ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিকস সহ ঘরের প্রয়োজনীয় সব আসবাব পত্র মিলবে এই সাইটে। 

কেন মানুষ সিন্দাবাদ ডটকমে কেনাকাটা করবে এমন প্রশ্নের জবাবে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আসিফ জহির বলেন, ‘আমাদের সাথে অন্যান্য ই-কমার্স সাইটের পার্থক্য হলো আমরা পণ্যের গুণগত মান নিশ্চিত হয়ে তারপর বিক্রি করি। আমরা নিজেরাই পণ্যের জন্য দায়বদ্ধ থাকি। প্রয়োজনে আমরা পণ্য নিজেদের স্টকে রাখি। গ্রাহককে অনলাইনের প্রতি বিশ্বস্ত করতে আমরা দেবো সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য এবং আকর্ষণীয় সেবা। আমরা সেভাবেই প্রস্তুতি নিয়েছি। আমি গুগলে কাজ করেছি। কিভাবে গ্রাহকদের চূড়ান্ত সেবা দেয়া যায় সে ব্যাপারে আমি গুগলের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাবো।’

অনলাইনে কেনাকাটার অন্য একটি সমস্যা হলো পণ্য পছন্দ না হলে ফেরত দেয়ার সুযোগ কম। সিন্দাবাদ ডটকম এক্ষেত্রে সম্পূর্ণ আলাদা। প্রতিষ্ঠানটির কো-ফাউন্ডার ও প্রধান নির্বাহী পরিচালক জীশান কিংশুক হক বলেন, ‘আমরা পণ্য সম্পর্কে বিস্তাড়িত ওয়েবসাইটে উল্লেখ করবো। সাথে থাকবে পণ্যের উন্নত মানের ছবি। এরপরেও গ্রাহকের পছন্দ না হলে সাথে সাথে ফেরত দেয়ার সুযোগও আমরা দিচ্ছি। এছাড়া কোন পণ্য যদি সাথে সাথে পরীক্ষা করা না যায়, সেক্ষেত্রে গ্রাহক তিন দিন পর্যন্ত সময় পাবে। কেউ যদি ৫০০টি কলম কেনে তারপক্ষে এতগুলো কলম সাথে সাথে পরীক্ষা করা সম্ভব নয়। এক্ষেত্রে আমরা গ্রাহককে পর্যাপ্ত সময় দেয়ার চেষ্টা করবো।’ 

৫টি ক্যাটাগরিতে ৬ হাজার পণ্য নিয়ে সিন্দাবাদ ডটকম যাত্রা শুরু করছে। বিনিয়োগকারীরা জানান, আরো অনেক পণ্য এবং ক্যাটাগরি যুক্ত হবে সামনের মাসগুলোতে। সিন্দাবাদ ডটকমের মাধ্যমে এস.এম.ই প্রতিষ্ঠান বৃহৎ প্রতিষ্ঠানের মত কেনাকাটা করতে পারবে।  নাম করা প্রতিষ্ঠানগুলোর সুযোগ থাকবে অর্ডার সাইজ নির্ণয়, পণ্য খোঁজা এবং দরদাম প্রভৃতি কাজে মানব সম্পদের অপচয় কমানোর মাধ্যমে কর্মদক্ষতা বাড়ানোর। আর এই প্রক্রিয়াতে স্বচ্ছতাও থাকবে।

ওয়েবসাইটে সাধারণ ক্রেতারাও কেনাকাটা করতে পারবে। ভলিওম ডিসকাউন্ট শুধুমাত্র বড় আকারের ব্যবসায়িক কেনাকাটার জন্য প্রযোজ্য হলেও ডেবিট বা ক্রেডিট কাড, ব্যাংক ট্রান্সফার, মোবাইল পেমেন্ট, চেক অথবা নগদের মাধ্যমে সবাই কেনাকাটা করতে পারবেন।

আজ রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে এক জাঁকজমকপূর্ণ  অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই ওয়েবসাইটটির যাত্রা শুরু হয়। ওয়েব সাইটটি উদ্বোধন করেন তথ্য,যোগাযোগ ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।