আপডেট : ২৫ আগস্ট, ২০১৬ ১৭:১১

বিনামূল্যে টেলিটক সিম পাবে ২০ লাখ ‘মা’, থাকবে ফ্রি টকটাইম

অনলাইন ডেস্ক
বিনামূল্যে টেলিটক সিম পাবে ২০ লাখ ‘মা’, থাকবে ফ্রি টকটাইম

সন্তানের উপবৃত্তির টাকা দেওয়ার জন‌্য মায়েদের বিনামূল্যে ২০ লাখ সিম দেবে রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক।

রূপালী ব্যাংক শিওরক্যাশের মাধ্যমে প্রাথমিকের উপবৃত্তির টাকা পরিশোধ করা হবে এসব সিমে; থাকবে প্রতিমাসে ফ্রি-টক টাইমও।

বুধবার (২৪ আগস্ট) সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠানে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে প্রাথমিক উপবৃত্তি দিতে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, রূপালী ব্যাংক এবং টেলিটকের সঙ্গেএ সংক্রান্ত একটি সমঝোতা চুক্তি হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. হুমায়ূন খালিদ, রূপালী ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক দেবাশীষ চক্রবর্তী এবং টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ এই চুক্তি করেন।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, “মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে উপবৃত্তি বিতরণ সরকারের সবচেয়ে বড় পেমেন্ট ডিজিটাইজেশন উদ্যোগ। এর মাধ্যমে সরকারের উপবৃত্তির টাকা সরাসরি মায়েদের মোবাইল ব্যাংকিং অ‌্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দিবে। এর ফলে উপবৃত্তি ব্যবস্থাপনা আরো সহজ ও দক্ষ হবে এবং মায়েদের ভোগান্তি কমবে।”

মায়েদের মোবাইল হ্যান্ডসেটের বিষয়টি সমাধান করতে উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান মন্ত্রী।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, “স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে মায়েদের ভূমিকা সবচেয়ে বড়। এজন্য আমরা উদ্যোগ নিয়েছি টেলিটক সব মায়েদের হাতে মোবাইল ফোন সংযোগ পৌঁছে দেবে, রূপালী ব্যাংক শিওর ক্যাশের মাধ্যমে তাদের হাতে ব্যাংক অ‌্যাকাউন্ট পৌঁছে দেবে এবং সরকার সরাসরি তাদের অ‌্যাকাউন্টে উপবৃত্তির টাকা পৌঁছে দেবে।”

টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ বলেন, “দেশের সকল মায়েদের হাতে মোবাইল এবং উপবৃত্তির টাকা পৌঁছে দেওয়ার জন্য টেলিটক ‘মায়ের হাসি’ নামে নতুন সেবা চালু করেছে। আমরা আগ্রহী মায়েদের কাছে বিনামূল্যে সিম বিতরণ করব এবং প্রতিমাসে ১৫ টাকা ফ্রি টক-টাইম দেব।”

প্রাথমিকভাবে প্রায় ২০ লাখ সিম বিনামূল্যে দেওয়া হবে বলে জানান টেলিটক ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

রূপালী ব্যাংক ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক দেবাশীষ চক্রবর্তী বলেন, “রূপালী ব্যাংক শিওরক্যাশ একটি পূর্ণাঙ্গ মোবাইল ব্যাংকিং এবং পেমেন্ট সেবা। আমরা দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর কাছে ব্যাংকিং সেবা পৌঁছে দিতে চাই এবং সমস্ত পেমেন্ট ডিজিটাইজেশন কার্যক্রমে সরকারের পাশে থাকতে চাই।”

এ সময় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল, শিওরক্যাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. শাহাদাত খানসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে