আপডেট : ২০ মে, ২০২০ ১২:২১

তামিমকে দেওয়া কথা রাখেনি খালেদ মাসুদ পাইলট

অনলাইন ডেস্ক
তামিমকে দেওয়া কথা রাখেনি খালেদ মাসুদ পাইলট

সবশেষ নিউজিল্যান্ড সফরটা পারলে ভুলে যেতে চাইবে বাংলাদেশ। পুরো সফরে ব্যর্থতার পাশাপাশি ক্রাইস্টচার্চ হামলায় আগে ভাগে চলে আসা, এই সফরে দুঃস্মৃতির অভাব নেই। সেই সফরে প্রথম টেস্টে সেঞ্চুরি করলে এক লাখ টাকা পাওয়ার ঘোষণার পর সুযোগটা কাজে লাগাতে ভোলেননি তামিম ইকবাল। তবে অনেকদিন হয়ে গেলেও সেই টাকা আর পাননি তিনি।

বাংলাদেশের সেই সফরে দলের ম্যানেজারের দায়িত্বে ছিলেন সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট। ওয়ানডে সিরিজে ভরাডুবির পর খেলোয়াড়দের প্রেরণা দিতে তিনি এক অভিনব প্রস্তাব দিয়েছিলেন। মঙ্গলবার ফেসবুক লাইভে এসব নিয়ে কথা বলেন তামিম ও পাইলট। 

তামিম বলেন, ‘ওয়ানডে সিরিজে খুব খারাপ খেলার পর পাইলট ভাই ম্যানেজার হিসেবে আমাদের বলে দেন, যে টেস্টে সবার আগে সেঞ্চুরি করবে তাকে ১ লাখ টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে।’

এই ঘোষণা পেয়ে হ্যামিল্টনে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসেই শতক হাঁকান তামিম। আউট হওয়ার আগে ১২৬ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেন তিনি। অবশ্য ম্যাচটিতে ইনিংস ব্যবধানে পরাজিত হয় বাংলাদেশ।

সেঞ্চুরি করলেও পরে তামিমকে আর টাকা দেননি খালেদ মাসুদ পাইলট। এ নিয়ে রসিকতা করে দেশসেরা ওপেনার বলেন, ‘আমি কিন্তু প্রথম দিনই একশ করছি। ঐ এক লাখ টাকা এখনো পাইনি। পাইলট ভাই, আমার টাকা কই?’

জবাবে পাইলট বলেন, ‘আসলে কখনো কখনো ভালো খেলার জন্য উৎসাহ দিতে অনেক প্রস্তাব দিতে হয়। আমাদের জন্য নিউজিল্যান্ড সফর খুব কঠিন ছিল। আমি চাচ্ছিলাম আমরা যেন নিজেদের সেরা পারফরম্যান্সটা দিতে পারি। ব্যক্তিগত ভালো কিছু ইনিংস হলে দলও ভালো করবে। তাই ওকে বলেছিলাম। আমি জানতাম তামিমই একশ মারবে আর আমাকে জ্বালাবে।’

মূলত পুরো ব্যাপারটিই ছিল রসিকতায় ভরা। তাই পরে আর তামিমকে টাকা দেননি পাইলট। তবে মজার ব্যাপারটি নিয়ে রসিকতা করার সুযোগ ছাড়েননি কেউই। 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে