আপডেট : ২ জুলাই, ২০২০ ২০:৩৪

১ মাসের ছুটি নিয়ে অনুপস্থিত ১১ বছর, তবুও চাকরি আছে শিক্ষিকার

অনলাইন ডেস্ক
১ মাসের ছুটি নিয়ে অনুপস্থিত ১১ বছর, তবুও চাকরি আছে শিক্ষিকার

জামালপুরের এক এমপি কন্যা এক মাসের অসুস্থতার ছুটি নিয়ে ১১ বছর ধরে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত রয়েছেন। ইসলামপুর উপজেলার জে জে কে এম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা হিসেবে কর্মরত ছিলেন এমপি কন্যা। তবুও তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নিয়ে নিজ পদে বহাল রাখা হয়েছে। কারণ বর্তমানে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী ওই শিক্ষিকা জামালপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য ফরিদুল হক খান দুলালের কন্যা।

২০০৫ সালে ফারজানা হক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বৈধভাবেই সহকারি শিক্ষক হিসেবে চাকরি পান। জে জে কে এম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তিনি যোগ দেন ২০০৯ সালে। সেখানে কয়েকদিন ক্লাস নেন। পরে ওই বছরই তিনি অসুস্থতাজনতি কারণে এক মাসের ছুটি নিয়ে স্বামী সন্তান নিয়ে অস্ট্রেলিয়াতে চলে যান। এরপর থেকে তিনি কর্মস্থলে অনুপস্থিত রয়েছেন। তারপরও তার বিরুদ্ধে এখনো কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

জে জে কে এম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আশরাফুর রহমান বলেন, তিনি বিদ্যালয়ে না আসলেও বেতন উত্তোলন করেন না। তবে তার পদ থেকেও অব্যাহতিও দেননি। তবে শুনেছি, তিনি অস্ট্রেলিয়া থেকে কিছুদিনের মধ্যে এসে, এর একটা ব্যবস্থা করবেন।

ইসলামপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ফেরদৌস বলেন, ওই শিক্ষিকা ২০০৯ সালে অসুস্থতাজনিত কারণে এক মাসের ছুটি নেন। এরপর থেকে তিনি কর্মস্থলে অনুপস্থিত রয়েছেন। তবে তিনি এরপর থেকে বেতনও উত্তোলন করেননি। তার বিরুদ্ধে সব ধরনের ব্যবস্থা নিবে জেলা অফিস।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো.আব্দুর রাজ্জাক বলেন, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে একটি প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জামালপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব ফরিদুল হক খান দুলাল বলেন, তার মেয়ে স্বামী নিয়ে দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। সেখানে একটা ব্যবস্থা হলেই এর একটা সুরাহা হবে। আগামী সেপ্টেম্বর অক্টোবরের মধ্যে এ বিষয়টি সমাধান হবে বলে তিনি জানান।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে