আপডেট : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১২:৩৩

অস্ত্রাগার লুটের উদ্দেশ্য ছিল চট্টগ্রামে আটক জঙ্গিদের

বিডিটাইমস ডেস্ক
অস্ত্রাগার লুটের উদ্দেশ্য ছিল চট্টগ্রামে আটক জঙ্গিদের

চট্টগ্রাম নগরীর 'জঙ্গি আস্তানায়' অভিযানে আটক জঙ্গিদের অস্ত্রাগার লুটের উদ্দেশ্য ছিল বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

র‌্যাবের মিডিয়া অ্যান্ড লিগ্যাল উইং পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান অভিযান শেষে প্রাথমিক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
 
বৃহস্পতিবার ভোরে র‌্যাব-৭ চট্রগ্রামের কর্নেলহাট এলাকার একটি নির্মাণাধীন বাড়ির 'জঙ্গি আস্তানায়' অভিযান পরিচালনা করে। সেখান থেকে নূরে আলম, হাফেজ আবু জার গিফারী ও ইফতেশাম আহমেদ নামে তিন হুজি সদস্যকে আটক করা হয়।
 
এসময় ওই 'জঙ্গি আস্তানা' থেকে ৭টি ম্যাগাজিন ১২টি গ্রেনেড, ২টি পিস্তলসহ বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক দ্রব্য উদ্ধার করা হয়।
 
মুফতি মাহমুদ বলেন, চট্রগামের কর্নেলহাটের এই নির্মাণাধীন দোতলা বাড়িটিতে পরিবার নিয়ে থাকার কথা বলে দেড় মাস আগে ভাড়া নেয় জঙ্গিরা। এরপর সেখানে জঙ্গি আস্তানা গড়ে তোলে।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, আটক জঙ্গিরা হরকাতুল জিহাদ (হুজি) সদস্য। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায়, আইনশৃংখলা বাহিনীর বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা করে অস্ত্রাগার লুটের উদ্দেশ্যে তারা সংগঠিত হচ্ছিল
 
তিনি বলেন, এছাড়া এই সংগঠনের যারা বিভিন্ন মামলার আসামি প্রিজনভ্যানে তাদের আনা নেয়ার পথে হামলা চালিয়ে ছিনিয়ে নেয়ার পরিকল্পণাও নেয় এই হুজি সদস্যরা।
 
র‌্যাব জানায়, র‌্যাবের অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে জঙ্গিরা ল্যাপটপ, কম্পিউটার ও বেশ কয়েকটি মোবাইল আগুনে পুড়িয়ে নষ্ট করে ফেলে।
 
র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মিফতাহ উদ্দিন আহমেদ জানান, গত রাতে নগরীর একে খান এলাকা থেকে অস্ত্রসহ তাজুল ইসলাম ও নাজিম উদ্দিন নামে দুই 'জঙ্গিকে' আটক করা হয়। মূলত তাদের তথ্যের ভিত্তিতে ওই বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

জেডেএম

উপরে