আপডেট : ৭ জুন, ২০১৬ ১৬:২৮

প্রাইভেটকার-অটোরিকশার সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রী নিহত

অনলাইন ডেস্ক
প্রাইভেটকার-অটোরিকশার সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রী নিহত

সিলেট নগরীর টিলাগড়ে প্রাইভেটকার ও সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রী নিহত হয়েছেন। সংঘর্ষে তাদের ৬ষ্ঠ শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে অরুণিমা স্পৃহাও (১২) গুরুতর আহত হয়েছে।

নিহতরা হচ্ছেন- নগরীর স্কলার্স হোম স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রশাসনিক কর্মকর্তা অরজিৎ রায় এবং তার স্ত্রী সুমিতা দাস। সুমিতা নগরীর দক্ষিণ সুরমার মহালক্ষ্মী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা ছিলেন।

জানা যায়, শহরতলির খাদিমপাড়া ইউনিয়নের শাহপরান নিপবন আবাসিক এলাকাস্থ নিজেদের বাসা থেকে মঙ্গলবার সকালে স্কুলে যাওয়ার জন্য বের হন অরজিৎ রায়, তার স্ত্রী সুমিতা দাস ও স্কলার্সহোমে ৬ষ্ঠ শ্রেণী পড়ুয়া তাদের মেয়ে অুরুণিমা স্পৃহা।

নগরীর টিলাগড় এলাকায় পৌঁছার পর তাদের বহনকারী সিএনজি অটোরিকশার সঙ্গে টিলাগড়গামী একটি প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই মারা যান অরজিৎ রায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তার স্ত্রী সুমিতা দাসকে ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নগরীর শাহপরান থানার অফিসার ইনচার্জ শাহজালাল মুন্সি দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অরজিৎ রায় ও সুমিতা দাসের লাশ ওসমানী হাসপাতালে মর্গে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

এদিকে দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত স্পৃহার জ্ঞান ফিরেছে বলে জানিয়েছেন তার মামা ড. ময়ুখ চৌধুরী। তবে স্পৃহাকে এখনো বাবা-মা নিহতের ব্যাপারে কিছু জানানো হয়নি বলেও জানিয়েছেন তিনি।

উপরে