আপডেট : ১ জুলাই, ২০১৬ ১৫:৫৬

“নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাবের ইফতার ও পোশাক বিতরণ”

অনলাইন ডেস্ক
“নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাবের ইফতার ও পোশাক বিতরণ”

“ঈদের পোশাক ও ইফতার বিতরণ”, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাবের ইভেন্টগুলোর মধ্যে অন্যতম। রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বায়তুল ফালাহ মসজিদ ও এতিমখানায় ইফতার বিতরণ করেছে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাব (এনএসইউএসএসসি)। বৃহস্পতিবার(৩০ জুন) রাজধানীতে  একমি , নর (ইউনিলিভার) এবং ইন্ডিগো এর সহযোগিতায়  ইফতারের আয়োজন ও পোশাক বিতরণ করা হয়েছে। ইভেন্ট এর মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে সমাজের পথ শিশুদেরসঙ্গে  ঈদের আনন্দ কিছুটা ভাগাভাগি করে নেওয়া।

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাবটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট হামিদ মুজতবা সিদ্দিকী জানান, 'প্রতিবারের মতন এই বারো আমরা সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করেছি। এই ইভেন্টের মাধ্যমে আমাদের চারপাশের সেইসব পথশিশুদের কষ্ট বুঝতে চেষ্টা করছি যারা ক্ষুধার কষ্ট সহ্য করে বেঁচে থাকার যুদ্ধ চালাচ্ছে প্রতিনিয়ত। যাদের আমাদের মতই হাসিমুখে আজানের ধ্বনির সাথে প্রিয়জনকে নিয়ে ইফতার করার কথা ছিল কিংবা ঈদের জামা নিয়ে খেলার সাথীদের সাথে লুকোচুরি খেলার কথা ছিল। কিন্তু তারা তা পারছে না ইচ্ছে থাকা সত্বেও। তাদের পাশে থেকে এই দুঃখটুকু মিলিয়ে দিয়ে এক পশলা আনন্দ ছড়িয়ে দেওয়াই আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য। 

আর সেই জন্য আমাদের ক্লাবের পক্ষ থেকে মাদ্রাসার এতিম বাচ্চাদেরকে  সাথে  নিয়ে একদিন ইফতার করা সহ ঈদের নতুন জামার খুশির ঝলক ছড়িয়ে দিয়েছি ঢাকা শহরের প্রায় এক হাজার পথশিশুদের মাঝে। যাদের কাছে ঈদের আনন্দ মানে বিলাসিতা তাদের মাঝে ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে দেয়ার মত ঈদ উপহার আর কিছু হতে পারেনা বলে আমাদের ধারণা। আর এই কাজটি আমরা করেছি আমাদের ক্লাবের ফান্ডিং থেকে সাহায্য নিয়ে'। 

তাছাড়া ক্লাবটির বর্তমান সেক্রেটারি (মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিকেশন্স) মাইশা মালিহা খান জানান, 'আমাদের একটু সহযোগিতা যে আনন্দের জোয়ার বইয়ে দেবে তাদের মাঝে, তার সাথে হয়ত অন্য কোন প্রশান্তির তুলনা করা যায়না। তাই “ঈদের পোশাক ও ইফতার বিতরণ” আমাদের জন্য শুধু একটি ইভেন্ট নয়, বরং সোশ্যাল সার্ভিসেস ক্লাবের পক্ষ থেকে ঈদ আনন্দ বিলি করার একটি ছোট্ট প্রচেষ্টা'।

 

 

উপরে