আপডেট : ২১ এপ্রিল, ২০১৬ ১৭:০৯

রোজাকে সামনে রেখে অস্থির হয়ে উঠছে নিত্যপণ্যের বাজার; উদ্বিগ্ন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়

অনলাইন ডেস্ক
রোজাকে সামনে রেখে অস্থির হয়ে উঠছে নিত্যপণ্যের বাজার; উদ্বিগ্ন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়

রোজা যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই অস্থির হয়ে উঠছে নিত্যপণ্যের বাজার। কোন কারণ ছাড়াই প্রতিদিন বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম। বিষয়টি ভাবিয়ে তুলছে সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলকে। রোজার আগেই নিত্যপণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে পরে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া কঠিন হতে পারে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

বিষয়টি নিয়ে হংকংয়ে অবস্থানত বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন। প্রয়োজনীয় নির্দেশনাও পেয়েছেন তিনি। নির্দেশনা অনুযায়ী করণীয় ঠিক করতে রোববার (২৪এপ্রিল) জরুরি বৈঠক ডেকেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার রাতে দেশে ফিরবেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। বাণিজ্যমন্ত্রী  সভায় উপস্থিত থাকতে পারেন বলে জানা গেছে।

রোববার বিকেলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিতব্য সভায় অংশগ্রহণের জন্য ইতোমধ্যেই কৃষিসচিব, খাদ্যসচিব, শিল্পসচিব, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) চেয়ারম্যান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দ্রব্যমূল্য পর্যালোচনা ও পূর্বাভাস সেলের ফোকাল পয়েন্ট ও ডব্লিউটিও সেলের মহাপরিচালক, আমদানি রফতানি নিয়ন্ত্রকের দফতরের প্রধান নিয়ন্ত্রক, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্যশিল্প করপোরেশনের চেয়ারম্যান, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা অধিদফতরের (এনএসআই) মহাপরিচালক, ডিজিএফআইয়ের মহাপরিচালক, বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন বিসিকের চেয়ারম্যান ও ব্যবসায়ী নেতাদের সভায় উপস্থিত থাকার জন্য নোটিশ পাঠানো হয়েছে।
বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমলেও দেশের বাজারে বেড়েছে সয়াবিন তেলের দাম। সরকারি নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে কোম্পানিগুলো নিজেদের মতো করে বাড়াচ্ছে সয়াবিন তেলের দাম। যৌক্তিক কোনও কারণ ছাড়াই ইতোমধ্যে বেড়েছে চিনি ও মসুর ডালের দাম।

বাজারে উঠেছে নতুন চাল। তারপরও দাম কমার কোনও লক্ষণ নেই। উল্টো বেড়েছে সব ধরনের চালের দাম। ভরা মৌসুমেও সহনীয় পর্যায়ে আসছে না রসুন ও পেঁয়াজের দাম। প্রচণ্ড খরায় পুড়ে যাওয়ার অজুহাতে বেড়েছে সব ধরনের সবজির দাম।

নদীনালা শুকিয়ে গেছে- এমন অজুহাতে বেড়েছে মাছের দাম। সবজি ও মাছের সরবরাহ কম দেখিয়ে বেড়েছে  মুরগির ডিম ও মাংসের দাম। আর সব কিছুর বাজারই যখন চড়া, তার ওপর সীমান্ত দিয়ে আসছে না ভারতীয় গরু। এমন অজুহাতে বেড়েছে গরুর মাসেংর দামও।

আশঙ্কা করা হচ্ছে, শবেবরাত ও রমজান যত ঘনিয়ে আসবে, এ সব নিত্যপণ্যের দামও তত বাড়বে। রমজানে চাহিদা বৃদ্ধি পায় বলে দামও বৃদ্ধি পায় পেঁয়াজ, রসুন, ছোলা, ডাল, তেলসহ সব কিছুর। একইসঙ্গে পাল্লা দিয়ে বৃদ্ধি পায় কাঁচামরিচ, শসা, ধনে পাতা, পুদিনা পাতা, লেবুর দাম। এবারও এর ব্যতিক্রম হবে না বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে