আপডেট : ২৩ জুলাই, ২০২০ ১৬:২০

শুটিং স্পটে গর্ভপাত নিয়ে যা বলল কাজল

অনলাইন ডেস্ক
শুটিং স্পটে গর্ভপাত নিয়ে যা বলল কাজল

বলিউডে অনেক তারকা দম্পতির সংসার ভেঙে গেলেও টিকে আছে অজয় দেবগন ও কাজজের সংসার। খুব সুখেই কাটছে তাদের সংসার। দাম্পত্য জীবনের ২১ বছর পার করে ফেলেছেন তারা। তাদের দুটি সন্তান নাইসা ও যুগ।

নিজেদের বাড়ির ছাদে একেবারে ঘরোয়া অনুষ্ঠান করে ১৯৯৯ সালে অজয় দেবগনের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন কাজল। সংবাদমাধ্যমের নজর এড়িয়েই অজয় দেবগনের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন মুখোপাধ্যায় বাড়ির মেয়ে।

বিয়ের অনুষ্ঠানে যাতে কোনও ক্যামেরার ফ্ল্যাশ ঝলসে না ওটে, তার জন্য তৎপর ছিলেন অজয়। পাঞ্জাবি ও মারাঠি রীতি মেনে অজয় দেবগনের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন কাজল।

বিয়ের পর সিডনি, হাওয়াই, লস এঞ্জেলসে মধুচন্দ্রিমায় পাড়ি দেন অজয়-কাজল। এরপর মিশরেরও যাওয়ার কথা ছিল তাদের। কিন্তু মধুচন্দ্রিমার মধ্যে হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন অজয় দেবগন। এরপর তারা বাড়ি ফিরে আসেন বলে জানান কাজল।

এমনকী, বিয়ের পর কাজল যখন কভি খুশি কভি গমের শুটিং করছিলেন, সেই সময় তার গর্ভপাত হয়ে যায়। ফলে শরীর অসুস্থ থাকায় তিনি সিনেমার প্রমোশন থেকে সাকসেস পার্টি, কোনোটাতেই হাজির হতে পারেননি। 
  
তবে এখানেই শেষ নয়, কভি খুশি কভি গমের শুটিংয়ের পর আবারও তার গর্ভপাত হয় বলে জানান কাজল। তবে পরপর দুবার গর্ভপাতের পর নাইশা এবং যুগ এসে ঘর আলোকিত করে বলে জানান কাজল।

এদিকে এ সংসার ঠিকে থাকার রহস্য নিয়ে আগেই মুখ খোলেন অজয় দেবগন। অজয় বলেন, আমাদের দাম্পত্য জীবন সুখের। কারণ সম্পর্কে আমরা দুজনেই দুজনকে স্পেস দিয়েছি। আমরা নিজেরা সবসময় বোঝার চেষ্টা করেছি। আমরা কে কি তা কখনও একে অপরের কাছে জাহির করার চেষ্টা করিনি। যখন নিজের মতো করে সময় কাটানোর দরকার পড়েছে, তখন আমি ওকে (কাজল) দিয়েছি।

তিনি বলেন, আমরা একসঙ্গেও সময় কাটিয়েছি। নিজেদের সুখ-দুঃখের অনেক কথা আলাপ করেছি। এক অপরকে অনেক বিষয়ে ছাড় দিয়েছি। কখনও প্রশ্ন তুলিনি। সবচেয়ে বড় কথা হলো- একে অপরকে ভালোবেসেছি, সম্মান করেছি। এ ছাড়া বাইরে যেমন আমরা একে অপরের সঙ্গে সময় কাটাই, তেমনি ঘরেও একে অপরের সঙ্গে ভালো সময় কাটাই।

সেই ১৯৯৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি সাতপাঁকে বাঁধা পড়েন তোরা। তার পর আর কেউ কাউকে ছেড়ে যাননি। সূত্র: জি নিউজ

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে