আপডেট : ২৭ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৯:১৬

ছেঁড়াদ্বীপে যেভাবে ঘুরে আসবেন

বিডিটাইমস ডেস্ক
ছেঁড়াদ্বীপে যেভাবে ঘুরে আসবেন

স্বচ্ছ জলরাশি আর প্রবাল পাথরের বিন্যাস নিয়ে ছোট্ট দ্বীপ ‘ছেঁড়াদিয়া’। সেন্টমার্টিনের দক্ষিণে বিচ্ছিন্ন দ্বীপটির প্রবাল পাথর ও নির্জনতা কাছে টানে ভ্রমণ পিপাসুদের। তাই এখানে দিন দিন বাড়ছে পর্যটকের সংখ্যা। চাইলে আপনিও ঘুরে আসতে পারেন অবসরের কোনো এক সময়।

মূলত জোয়ারের সময় সেন্টমার্টিন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বলে এমন নাম হয়েছে দ্বীপটির। এটি দেশের সর্ব দক্ষিণের শেষ ভূখণ্ড। নীল জলরাশির মাঝখানে প্রবাল পাথরের তৈরি দ্বীপটি।

প্রায় তিন বর্গকিলোমিটার আয়তনের এ দ্বীপের চারপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে পাথর, ঝিনুক, শামুকের খোলস, চুনাপাথর। স্বচ্ছ পানির উত্তাল স্রোতের আঘাতে এসব পাথরের গায়ে খচিত হয়েছে বৈচিত্র্যময় সব নকশা। যা আকর্ষণ করে পর্যটকদের। তাই সেন্টমার্টিন থেকে ট্রলারে করে আধঘণ্টার পথ পাড়ি দিয়ে অনেকেই ছুটে যান নির্জন এই দ্বীপে।

জোয়ারের সময় পানিতে তলিয়ে যায় ছেঁড়াদিয়ার বড় একটি অংশ। ফলে এখনও গড়ে ওঠেনি কোনো জনবসতি।

নানা প্রজাতির সামুদ্রিক পাখির আবাসস্থলও ছেঁড়াদ্বীপ। এছাড়া কাঁকড়া, শামুক, ঝিনুকসহ প্রায় ২শ' প্রজাতির সামুদ্রিক জীবের উপস্থিতি আছে অনিন্দ্য সুন্দর এই দ্বীপে।

এ দ্বীপে মানুষের বসতি নেই। ছোট্ট একটি চায়ের দোকান আছে। নাম- মৌসুমী হোটেল। এখানে চা পাওয়া যায়। এছাড়া আরেকজন ডাব বিক্রি করেন এখানে। দ্বীপের চারপাশেই সাগর। কেয়া গাছের বন অনেকটা লম্বালম্বিভাবে দাঁড়িয়ে আছে। ভাটার সময় সেন্টমার্টিন থেকে হেঁটেও আসা যায়। চাইলে এ দ্বীপটি প্রদক্ষিণ করতে পারেন আপনিও। সময় লাগবে ঘণ্টাখানেক।

যেভাবে যাবেন

ঢাকার ফকিরাপুল ও আরামবাগ থেকে টেকনাফের উদ্দেশে শ্যামলী, হানিফ, রিলাক্স, সৌদিয়া, সেন্টমার্টিন বাস ছেড়ে যায় সকাল ও রাতে। ভাড়া নন-এসি ৯৫০ ও এসি ১ হাজার ৪৫০ টাকা। টেকনাফ থেকে কেয়ারি সিন্দাবাদ, কেয়ারি ক্রুজ অ্যান্ড ডাইন, কুতুবদিয়া জাহাজ প্রতিদিন সকাল ৯টায় ছেড়ে যায় সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে। ভাড়া যাওয়া-আসা ৫০০ থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকা। সেন্টমার্টিন থেকে ট্রলারে বা স্পিডবোটে যাওয়া যাবে ছেড়া দ্বীপ। ট্রলারে প্রতিজন আসা-যাওয়া ২০০ টাকা। চাইলে স্পিডবোট বা ট্রলারও রিজার্ভ নেয়া যাবে।

ছেড়া দ্বীপে থাকা-খাওয়ার সুযোগ নেই

ছেড়া দ্বীপে থাকা-খাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তাই ছেড়া দ্বীপে গেলে সেন্টমার্টিন থেকে খাবার নিয়ে যেতে হবে। থাকা-খাওয়ার জন্য সেন্টমার্টিনে রয়েছে বেশ কিছু হোটেল। ১ হাজার থেকে ৩ হাজার টাকায় থাকা-খাওয়া যাবে এসব হোটেলে। এখানে ৪ জনের কটেজ ভাড়া ৩ হাজার ও ২ জনের রুম ১ হাজার ৫০০ টাকা। খাওয়া খরচ গড়ে প্রতি বেলা প্রতি জন ২০০ থেকে ২৫০ টাকা।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম/পিএম

উপরে