আপডেট : ২০ মে, ২০১৮ ১৭:৪৬

জানেন সিনেমায় আসার আগে কী করতেন এই নায়িকারা?

অনলাইন ডেস্ক
জানেন সিনেমায় আসার আগে কী করতেন এই নায়িকারা?

বর্তমান সময়ে কলকাতার চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তাঁরা। এ পর্যন্ত অসংখ্য হিট ছবি উপহার দিয়েছেন। অথচ শুরুটা কিন্তু মোটেও সিনেমা দিয়ে হয়নি তাঁদের। জানা যাক কলকাতার কয়েকজন জনপ্রিয় অভিনেত্রীর শুরুর গল্প-

স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়

কলকাতার যাবদপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। সেই সময় এক টেলিভিশন ধারাবাহিক নির্মাতার চোখে পড়েন স্বস্তিকা। যথারীতি তাঁকে ছোট পর্দায় কাজের প্রস্তাব দেন ওই পরিচালক। এরপর বিভিন্ন টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয় করা শুরু করেন স্বস্তিকা। ধারাবাহিকে তাঁর সাবলীল অভিনয় নজর কাড়ে চলচ্চিত্র পরিচালকদের। ২০০৩ সালে ‘হেমন্তের পাখি’ দিয়ে বড়পর্দায় হাতেখড়ি হয় তাঁর। এরপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে।

পাওলি দাম

২০০৩ সালে ‘জীবন নিয়ে খেলা’ নামক একটি ধারাবাহিকে অভিনয়ের মাধ্যমে অভিনয় জীবন শুরু করেন পাওলি দাম। তাঁর অভিনয় দক্ষতায় মুগ্ধ হয়ে পরিচালক সুদেষ্ণা রায় তাঁকে ছবির প্রস্তাব দেন। ২০০৪ সালে সুদেষ্ণার ‘তিন ইয়ারি কথা’ দিয়ে শুরু হয় পাওলির বড়পর্দার যাত্রা। তারপর পর্দায় নিজের চরিত্র নিয়ে নানা ধরণের পরীক্ষানিরীক্ষা চালাতে থাকেন। টলিউড ছাপিয়ে তিনি পৌঁছে যান বলিউডে। তাঁর অভিনীত ‘হেট স্টোরি’ ছবিটি সমালোচকদের ব্যাপক প্রশংসা পায়।

পার্নো মিত্র

‘খেলা’ নামক একটি ধারাবাহিক নাটক দিয়ে অভিনয় ক্যারিয়ার শুরু করেন পার্নো মিত্র। এছাড়া বিভিন্ন টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয় করে মুগ্ধ করেন সংগীতশিল্পী ও পরিচালক অঞ্জন দত্তকে। এরপরই পার্নোর চলচ্চিত্রের দরজা খুলে যায়। অঞ্জন দত্তের পরিচালনায় ‘রঞ্জনা আমি আর আসব না’ ছবিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পান। আর এখন টলিউড ছাড়িয়ে বলিউডের বহু পরিচালকের ছবিতে অভিনয় করে চলেছেন পার্নো।

সোহিনী সরকার

সিনেমায় প্রবেশ করার আগে ছোট পর্দায় কাজ করতেন সোহিনী সরকার। ‘ওগো বধূ সুন্দরী’ এবং ‘অদ্বিতীয়’ নামক ধারাবাহিকে তাঁর অভিনয় ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পায়। সেখান থেকেই এক লাফে চলে যান বড়পর্দায়। অতনু ঘোষের পরিচালনায় ‘রূপকথা নয়’ ছবিতে অহনার চরিত্রে অভিনয় করেন সোহিনী। এরপর ‘ফোরিং’, ‘ওপেন টি বায়োস্কোপ’র মতো ছবি তাঁর ঝুলিতে আসতে থাকে। বর্তমানে পরিচলকদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছেন এই তারকা।

ঋতাভরী চক্রবর্তী

‘ওগো বধূ সুন্দরী’ নামক একটি জনপ্রিয় ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন ঋতাভরী চক্রবর্তী। ধারাবাহিকটিতে তাঁর অভিনয় এতোটাই প্রশংসিত হয় যে, সরাসরি চলচ্চিত্রে কাজ করার প্রস্তাব পেয়ে বসেন। এরপর ‘তোমার সঙ্গে প্রাণের খেলা’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ ঘটে ঋতাভরীর।সম্প্রতি বলিউডের ‘পরী’ ছবিতে অভিনয় করে বেশ প্রশংসিত হয়েছেন তিনি। শুধু অভিনয় নয়, কলকাতার অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রীদের একজন ধরা হয় তাঁকে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে