আপডেট : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৪:০০

হেমা খুনে গ্রেপ্তার স্বামী চিন্তন উপাধ্যায়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
হেমা খুনে গ্রেপ্তার স্বামী চিন্তন উপাধ্যায়

চিত্রশিল্পী হেমা এবং তাঁর আইনজীবী হরিশ ভামভানির খুনে জড়িত থাকার অভিযোগে হেমার স্বামী চিন্তন উপাধ্যায়কে গ্রেপ্তার করেছে মুম্বাই পুলিশ। জোড়া খুনে জড়িত থাকার অভিযোগে মঙ্গলবার ভোরে চিন্তনকে গ্রেপ্তার করে কান্দিভালি থানা পুলিশ।
 
মুম্বাই পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (উত্তর) ফতেহসিংহ পাতিল জানিয়েছেন, সোমবার রাতে চিন্তনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে মুম্বাই পুলিশের অপরাধদমন শাখা।মুম্বাইয়ের গোয়েন্দা পুলিশের দাবি শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হয় চিত্রশিল্পী হেমা এবং তার আইনজীবী হরিশ ভামভানিকে। 
 
একটি ভিডিও চিত্রের টোপ ফেলে ওই দিন ঘটনাস্থলে ডেকে আনা হয় দুজনকে বলেও তথ্য দিয়েছে পুলিশ। 
 
চিন্তন-হেমার বিয়ে হয় ১৯৯৮ সালে। পরে তারা চলে আসেন মুম্বাই। শিল্পী হিসেবে পরিচিতি পাওয়ার জন্য শুরু হয় চিন্তন-হেমার লড়াই। দহিসর এবং বোরিভলির এ্যাপার্টমেন্টে প্রথম দিকে একসঙ্গে থাকতেন তারা। পরে ২০০৫-এ জুহুতে ফ্ল্যাট কেনেন দু’জন। তত দিনে তাদের জীবনে আসে আর্থিক সচ্ছলতা। সমস্যার শুরুও তারপর থেকে।
 
হেমার ভাই দীপক অভিযোগ করেন, জুহুতে ফ্ল্যাট কেনার এক বছরের মধ্যে তাদের সম্পর্কে ফাটল ধরে। 
 
দীপক বলেন, ‘‘চিন্তন হতাশ হয়ে পড়ছিল। কারণ সে আন্তর্জাতিকভাবে হেমার মতো খ্যাতি অর্জন করতে পারেনি। হেমার এমন সাফল্য মেনেও নিতে পারেনি চিন্তন।”
 
চিন্তন-হেমার ১২ বছরের দাম্পত্য জীবন ২০১০-এ এসে মামলায় রুপ নেয়।

২০১০ সাল থেকেই হেমা ও চিন্তনের বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা চলছে হাই কোর্টে। প্রতিটি মামলাতেই হেমার আইনজীবী ছিলেন হরিশ। গত ১২ ডিসেম্বর মুম্বাইয়ের কান্দিভেলিতে নর্দমার পাশ থেকে উদ্ধার হয় হেমা ও তাঁর আইনজীবী হরিশ ভাম্ভানির মৃতদেহ। খুনের ঘটনায় প্রথমে তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
 
 
বিডিটাইমস৩৬৫ ডটকম/আরআর/একে

উপরে