আপডেট : ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২২:২২

স্মার্টফোন ও ল্যাপটপ তৈরি হবে হাইটেক পার্কে!

বিডিটাইমস ডেস্ক
স্মার্টফোন ও ল্যাপটপ তৈরি হবে হাইটেক পার্কে!

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে হাইটেক পার্ক স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয় ১৯৯৯ সালে। বড় আকারের বহুজাতিক কোম্পানি বা মূলধনসমৃদ্ধ বিশ্বমানের বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করার লক্ষ্যে কালিয়াকৈরে ২৩১ দশমিক ৬৮৫ একর জমি অধিগ্রহণ করা হয়।

কালিয়াকৈরে অবস্থিত সেই হাইটেক পার্কে স্মার্টফোন ও ট্যাব তৈরি হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ২৮ ফেব্রয়ারি কালিয়াকৈর হাইটেক পার্কের ৫ ও ২ নম্বর ব্লকে সামিট টেকনোপলিস লিমিটেডের সিগনেচার বিল্ডিং ও ম্যানুফেকচারিং বিল্ডিংয়ের গ্রাউন্ড ব্রেকিং উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

হাইটেক পার্কের ৫ ও ২ নম্বর ব্লকে স্মার্টফোন ও ট্যাব তৈরি করার মহাপরিকল্পনা সরকার হাতে নিয়েছে জানিয়ে পলক বলেন, আমাদের দেশে প্রচুর পরিমাণে স্মার্টফোন ও ল্যাপটপ প্রয়োজন। বিদেশ থেকে এসব আমদানি করতে প্রচুর টাকা বাইরে চলে যায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে আমরা হাইটেক পার্কের ৫ নম্বর ব্লকের এক একর জমিতে স্মার্টফোন ও ল্যাপটপ তৈরি করবো। এখানে লক্ষাধিক তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে। এ কাজে শ্রীলঙ্কা আমাদের পাশে থাকবে।

তিনি আরো বলেন, আজকে অত্যন্ত আনন্দের দিন। কারণ, বাংলার মাটিতে তৈরি হবে স্মার্টফোন ও ল্যাপটপ। সে কাজই শুরু হতে যাচ্ছে।

ইতোমধ্যে সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে হাইটেক পার্কের অবকাঠামো নির্মাণ করা হয়। হাইটেক পার্কে বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টির জন্য বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ আইন ২০১০ প্রণয়ন করা হয়েছে। এতে আইসিটি বিভাগ ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে।

উপরে