আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৫ ২০:৪৮

মোবাইলের একটি নির্দিষ্ট বাটনে চাপ দিলেই পুলিশ হাজির!

বিপদ হঠাৎ করেই আসে!এমন বিপদে দিশেহারা হন অনেকে। কী করবেন ভেবে পান না। এখন থেকে দুশ্চিন্তার কারণ নেই। হাতে থাকা মোবাইলের বাটনে চাপ দিলেই হাজির হবে পুলিশ। তাৎক্ষণিকভাবে বিপদ থেকে উদ্ধারের ব্যবস্থা করা হবে। নারী-পুরুষ, ছোট কিংবা বড় সবার ক্ষেত্রেই ছুটে আসবে পুলিশ।
বিডিটাইমস ডেস্ক
মোবাইলের একটি নির্দিষ্ট বাটনে চাপ দিলেই পুলিশ হাজির!

বাংলাদেশের মোবাইল ফোন গ্রাহকদের জন্য নতুন একটি প্রযুক্তি সেবা নিয়ে আসছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ।

আগামী তিন মাসের মধ্যেই গ্রাহক পর্যায়ে এ সেবা উন্মুক্ত করার আশা করছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

‘মোবাইল হেল্প সাবস্ক্রাইবার’ নামের এ সেবাটি সম্পর্কে তারানা হালিম সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিপদগ্রস্ত মানুষের সাথে থাকা মোবাইলের নির্দিষ্ট একটি বাটনে পরপর তিনবার চাপ দিলেই নিকটস্থ পুলিশ স্টেশনে ওয়্যারলেস প্রযুক্তির মাধ্যমে খবর চলে যাবে। বিপদগ্রস্ত ব্যক্তির বিপদে পড়ার স্থানটিও ভেসে উঠবে থানায় সংরক্ষিত মোবাইল ডিভাইসে। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ চলে যাবে সেখানে, ব্যবস্থা নেবে’।

এই সেবাটি চালুর জন্য মোবাইল অপারেটর এবং প্রযুক্তিবিদসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে শিগগিরই কথা বলা হবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

ইতোমধ্যে বিপদে পড়া নারীকে সহায়তা দিতে সব মোবাইলে ‘প্যানিক বাটন’ যুক্ত করার উদ্যোগ নিয়েছে ভারত সরকার।
সেখানে শুধু নারীর জন্য প্যানিক বাটন চালু হলেও বাংলাদেশে এ সেবার আওতায় নারী-পুরুষ সবাই আসবেন বলেও জানান তারানা হালিম।

বাংলাদেশের কল-কারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের সুস্থ, নিরাপদ ও উন্নত কর্মপরিবেশ গড়ার লক্ষ্যে চলতি বছরের মার্চে একটি হেল্পলাইন চালু করেছে শ্রম মন্ত্রণালয়।

উপরে