আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৭:৪৮

২০১৬’র অপেক্ষায় ‘টেক ফ্রিকরা’

রোকনুজ্জামান রনি
২০১৬’র অপেক্ষায় ‘টেক ফ্রিকরা’

আসছে ২০১৬। নতুন বছরে প্রযুক্তিপণ্যের বাজারে যোগ হবে অনেক কিছুই। প্রযুক্তি নির্ভর এযুগের মানুষরা এখন অপেক্ষায় নতুন এ পণ্যের বিলাসী আহ্বানে সাড়া দিতে।

আকাঙ্খিত এসব প্রযুক্তিপণ্যগুলো নিয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ‘সিনেট’।

অকুলাস রিফট ও টাচ:

বহুল আলোচিত ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) হেডসেট ‘রিফটের’ বাণিজ্যিক সংস্করণ উন্মুক্ত করেছে অকুলাস ভিআর। ২০১৬ সালের শুরুতেই বাজারে অভিষেক হবে হেডসেটটির, আনুষঙ্গিক হিসেবে সঙ্গে থাকবে মাইক্রোসফটের এক্সবক্স ওয়ান গেইমিং কনসোল কন্ট্রোলার।

মাইক্রোসফটের সঙ্গে চুক্তির বদৌলতে গেইমাররা রিফট হেডসেটেই এক্সবক্স ওয়ানের গেইমগুলো স্ট্রিম করতে পারবেন।

গেইম খেলার সময় হোম সিনেমা স্ক্রিনে সিনেমা দেখার মতোই অভিজ্ঞতা হবে তাদের। মাইক্রোসফটের সঙ্গে চুক্তির পাশাপাশি ভিআর হেডসেটটির জন্য নিজস্ব কন্ট্রোলারও তৈরি করছে অকুলাস।

এইচটিসি ভাইভ:

গেইমিং জায়ান্ট ভালভের সঙ্গে জোট বেধে স্মার্টফোন নির্মাতা এইচটিসি বানাচ্ছে ভিআর হেডসেট ‘এইটটিসি ভাইভ’। ২০১৫ সালে বাজারে আসার কথা থাকলেও ডিভাইসটি এখনও আসার অপেক্ষায়।

সনি প্লেস্টেশন ভিআর:

জাপানি প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সনি, ‘প্রজেক্ট মরফিয়াস’ নামে একটি ভার্চুয়াল রিয়ালিটি (ভিআর) হেডসেটের আনার ঘোষণা দিয়েছে। ২০১৬ সালের শুরুতে ‘প্রজেক্ট মরফিয়াস’ বাজারজাত করা হবে বলে জানিয়েছে তারা।

ডিভাইসটিতে ১৯২০ বাই ১০৮০ পিক্সেলের ৫.৭ ইঞ্চির ওএলইডি ডিসপ্লে থাকবে। প্রতি সেকেন্ড ১২০ ফ্রেম রেটে গেইম খেলা যাবে মরফিয়াস হেডসেট ব্যবহার করে। মরফিয়াসের ‘ফিল্ড অফ ভিউ’ হবে একশ ডিগ্রি।

মাইক্রোসফট হলোলেন্স:

আপনার সামনে নেই কোনো মনিটর, নেই কোনো কি-বোর্ড। নেই মাউস কিংবা গেইম জয়েস্টিক। তারপরও ইচ্ছে করলেই আপনি খেলছেন গেইম। বন্ধু অথবা পরিচিতদের সঙ্গে স্কাইপিতে ভিডিও চ্যাটিং করছেন। ঘরের দেয়ালে কাল্পনিক স্ক্রিন ঝুলিয়ে দেখছেন মুভি।

এসব এখন আর কল্পনার জগত কিংবা সায়েন্স ফিকশনে সীমাবদ্ধ নেই। কল্পনার এ জগতকে বাস্তবে রূপ দিতে সফটওয়ার জায়ান্ট মাইক্রোসফট উদ্ভাবন করেছে ‘মাইক্রোসফট হলোলেন্স’। হলোলেন্সের ডেভেলপমেন্ট কিট ২০১৬ সালে তিন হাজার ডলার দামে বাজারে ছাড়া হবে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৭ আর এস ৭ এজ:

২০১৬ সালে নতুন ডিজাইনে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ আর এস৭ এইজ আনা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অ্যাপল ওয়াচ ২:

আশা করা হচ্ছে ২০১৬ সালের মার্চ মাস বা তার পরে অ্যাপল ওয়াচ ২ উন্মোচন করবে অ্যাপল। অনেকেই আশা করছেন এতে ‘ইন্টিগ্রেটেড ক্যামেরা’ যোগ করা হবে।

নিনটেনডো এনএক্স গেইম কনসোল:

২০১৬ সালে ‘নিনটেনডো এনএক্স’ নামে জাপানিজ গেইমিং কনসোল নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির নতুন ‘কনসোল/মোবাইল হাইব্রিড গেইমিং সিস্টেম’ আনার কথা রয়েছে। বর্তমান নিনটেনডো উই ৪-এর সঙ্গে এর কী মিল বা পার্থক্য থাকবে তা এখনও স্পষ্ট নয়।

টেসলা মডেল ৩:

টেসলার নতুন বৈদ্যুতিক গাড়ি মডেল ৩, ২০১৭ সালের আগে রাস্তায় নামছে না। কিন্তু ২০১৬ সাল থেকেই এটির প্রি-অর্ডার নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন টেসলা প্রধান ইলন মাস্ক। ৩৫ হাজার ডলার থেকে শুরু হবে এর দাম।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরআর/একে

উপরে