আপডেট : ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ১৬:০৬

ভোটের মাঠে সরব ‘নিখোঁজ’ ইলিয়াস আলী!

অনলাইন ডেস্ক
ভোটের মাঠে সরব ‘নিখোঁজ’ ইলিয়াস আলী!

সিলেট-২ (বিশ্বনাথ-ওসমানীনগর) আসনে টানা তিনবার নির্বাচন করেছিলেন বিএনপির নিখোঁজ নেতা এম ইলিয়াস আলী। বিজয়ী হয়েছিলেন দুবার। নিখোঁজ হলেও ভোটের রাজনীতিতে যেন সরব হয়ে উঠছেন তিনি। নির্বাচনের রাজনীতিতে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী ইলিয়াসের অনুপস্থিতিতে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের তালিকা বেশ দীর্ঘ হয়েছে। এ নিয়ে দলের মধ্যে বিভক্তি বেড়েই চলেছে। ইলিয়াস আলীর অনুপস্থিতিতে রাজনীতিতে আসা তাঁর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর লুনা দলের মনোনয়ন পাবেন বলে প্রচার আছে।

বিশ্বনাথ ও ওসমানীনগর নিয়ে গঠিত এ আসনে ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে সাংসদ নির্বাচিত হন বিএনপির নেতা এম ইলিয়াস আলী। ২০০৮ সালের নির্বাচনে মনোনয়ন পেলেও তিনি আওয়ামী লীগের প্রার্থী শফিকুর রহমান চৌধুরীর কাছে হেরে যান। ২০১৪ সালের নির্বাচনে জাপাকে আসনটি ছেড়ে দিয়েছিল আওয়ামী লীগ। কেন্দ্রের নির্দেশে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন তৎকালীন সাংসদ শফিকুর রহমান চৌধুরী।

২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল থেকে ইলিয়াস আলী ‘নিখোঁজ’ থাকায় নির্বাচনী এলাকায় যাতায়াত বাড়ে তাঁর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীরের। তিনি বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পদে আছেন। আসন্ন নির্বাচনে স্বামী ইলিয়াস আলীর অবর্তমানে তাহসিনা রুশদীর বিএনপি থেকে মনোনয়ন পাবেন বলে এলাকায় ব্যাপকভাবে প্রচার রয়েছে। তিনি দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন।

ইলিয়াস আলী নিখোঁজ হওয়ার পর এই সংসদীয় এলাকার স্থানীয় সরকারের সব নির্বাচনেই তিনি আলোচনায় ছিলেন। ভোটারদের সহানুভূতি পেতে তাঁর নাম আলোচনায় আনেন অনুসারীরা। এই অবস্থায় এ আসনের তিনটি উপজেলার চেয়ারম্যানই বিএনপি-সমর্থিত। এমনকি ইউপি চেয়ারম্যানদের বেশির ভাগই বিএনপি ঘরানার। এ সুবিধা আগামী সংসদ নির্বাচনেও পাওয়া যাবে বলে তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা মনে করেছেন।

তাহসিনা রুশদী বলেন, ‘এলাকার মানুষের প্রয়োজনে, ইলিয়াস আলীর অনুপস্থিতির কারণে বিশেষ পরিস্থিতিতে রাজনীতিতে এসেছি। গত স্থানীয় নির্বাচনগুলোতে কিছু পথসভা-সমাবেশ করেছি, যাতে মানুষ বিএনপির প্রার্থীকে ভোট দেন। এর বাইরে আগামী সংসদ নির্বাচন সম্পর্কে আমার ব্যক্তিগত কোনো ভাবনাচিন্তা নেই। দল যে সিদ্ধান্ত নেয়, সেটিই আমার সিদ্ধান্ত হবে।’ নিখোঁজ হয়েও ভোটের মাঠে সরব থাকা প্রসঙ্গে তাহসিনা আবেগের সুরে বলেন, ‘বিশ্বনাথ-বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরের যে রাস্তায়ই আপনি হাঁটবেন, সে রাস্তাই ইলিয়াস আলীর কথা বলবে।’

ইলিয়াস আলীর অনুপস্থিতিকে দলীয় শক্তি হিসেবে কাজে লাগাতে চায় সিলেট বিএনপি। কেবল ইলিয়াস আলীর নামের দোহাই দিয়েই বিএনপির প্রার্থী অনায়াসে জয় পাবেন বলে ধারণা দলটির। এ ছাড়া এই আসনে তাহসিনার বিকল্প কোনো প্রার্থীও নেই।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে