আপডেট : ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ২০:০৫

এবার নৌকায় উঠছে ইসলামী ঐক্যজোট!

অনলাইন ডেস্ক
এবার নৌকায় উঠছে ইসলামী ঐক্যজোট!

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে নির্বাচনি সমঝোতা করেছে ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল ইসলামী ঐক্যজোট। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দল বা মহাজোটে না গেলেও একসঙ্গে নির্বাচনে যাবে দলটি। ৪টি আসনের নিশ্চয়তা চাইলেও ৩টি আসন পাওয়ার আশ্বাস পেয়েছে ইসলামী ঐক্যজোট।

এছাড়া বিজয় নিশ্চিত করতে দলীয় প্রতীকের বদলে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করার চিন্তাভাবনাও চলছে দলটিতে। দলের একাধিক শীর্ষনেতার সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগের কাছে দলের চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামীর জন্য নরসিংদী-৩, মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহর জন্য চট্টগ্রাম-৭, ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনীর জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ ও ৩-এর মধ্যে যেকোনো একটি, সহকারী মহাসচিব মাওলানা আলতাফ হোসাইনের জন্য কুমিল্লা-১ আসন চায় ইসলামী ঐক্যজোট। আওয়ামী লীগ দলটির তিন নেতার জন্য ৩টি আসন ছাড় দেওয়ার আশ্বাস দেয়।

এদিকে, আশ্বাস না পাওয়ায় নির্বাচনে প্রার্থী হবেন না মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ। আর ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনীকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ ও ৩—এ দুটি আসনের কোনটিতে দেওয়া হবে, সে আলোচনা চলছে। নির্বাচন কমিশনে ২০০৮ সালে নিবন্ধিত এ দলটির দলীয় প্রতীক ‘মিনার’ হলেও ‘নৌকা’ প্রতীকে ভোটে দাঁড়াতে প্রস্তাব আওয়ামী লীগের। দলটিও এই প্রস্তাবে অনেকটাই রাজি হয়েছে।

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটে ১৭ বছর ছিল ইসলামী ঐক্যজোট। দীর্ঘদিনের পুরনো সেই সম্পর্ক ত্যাগ করে ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে ২০ দলীয় জোট ছাড়ে দলটি। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের আস্থায় যেতে তৎপরতা ছিল দলটির। ২০১৭ সালে আওয়ামী লীগের কাছে আসন চেয়ে চিঠিও দিয়েছিল দলটি। ৬ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সংলাপে অংশ নিতে গণভবনে গিয়েছিলেন ইসলামী ঐক্যজোটের ১২ নেতা। পাশাপাশি, তফসিল ঘোষণার পর স্বাগত জানিয়েছেন তারা। এছাড়া, কওমি সনদের স্বীকৃতি আদায়, স্বীকৃতির পর সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে মিছিল করেন দলটির নেতারা।

সর্বশেষ ৪ নভেম্বর অনুষ্ঠিত কওমি সনদের স্বীকৃতির জন্য শোকরানা মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আবারও ক্ষমতায় দেখতে চেয়ে বক্তব্য রাখেন দলটির নেতারা।

আওয়ামী লীগের সঙ্গে সমঝোতা প্রসঙ্গে ইসলামী ঐক্যজোটের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী বলেন, ‘ইসলামী ঐক্যজোট ইসলামের নীতি ও আদর্শের রাজনীতি করে। ইসলামের জন্য মঙ্গল হয়, কাজ করা সম্ভব, এমন যেকোনও দলের সঙ্গে সমঝোতায় আমাদের কোনও আপত্তি নেই।’

নির্বাচনি প্রতীক প্রসঙ্গে ইসলামী ঐক্যজোটের একাধিক নেতা বলেন, ‘আমাদের নিজস্ব প্রতীক মিনার হলেও নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করার প্রস্তাব দিয়েছে আওয়ামী লীগ। এতে সুবিধা হলো, আওয়ামী লীগের ভোটগুলোও আমাদের ভোটব্যাংকে যোগ হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে দলের মধ্যে কিছুটা মতবিরোধ রয়েছে। এরপরও ঝুঁকি এড়াতে আমরা নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ আলোচনার করে শিগগিরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে