আপডেট : ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ২২:০৬

জাফরুল্লাহকে বাদ দিতে ফখরুলকে ড.কামালের নির্দেশ!

অনলাইন ডেস্ক
জাফরুল্লাহকে বাদ দিতে ফখরুলকে ড.কামালের নির্দেশ!

নবগঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম পরিচিত মুখ বিএনপি পন্থী বুদ্ধিজীবী ডা. জাফরুল্লাহকে ঐক্য থেকে বাদ দেওয়ার জন্য বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামকে নির্দেশ দিয়েছেন ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন।

আজ মঙ্গলবার রাতে ফোন করে তিনি ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শরিক বিএনপির মাহসচিবকে এ কথা বলেন।

সন্ধ্যায় মির্জা ফখরুলকে ফোন করে ড. কামাল বলেন, ডা. জাফরুল্লাহ উল্টোপাল্টা কথা বলছেন। এরই মধ্যে তাঁর নামে মামলা হয়েছে। তাঁকে অতি দ্রুত বাদ দিতে হবে।

এসময় মির্জা ফখরুল ড. কামালকে বলেন, স্যার, এরই মধ্যে তিনি ক্ষমা চেয়েছেন। তাঁকে বাদ দেওয়ার কী আর প্রয়োজন আছে।

ড. কামাল বলেন, ক্ষমা চাইলেও ডা. জাফরুল্লাহকে বাদ দিতেই হবে। প্রথম কথা, ডা. জাফরুল্লাহর কোনো দল নেই। দলের জোট ঐকফ্রন্ট, কিন্তু জাফরুল্লাহর তো কোনো দলই নেই। আর সবচেয়ে বড় বিষয় হলো তিনি সেনাবাহিনীকে আমাদের বিরুদ্ধে খেপিয়ে তুলছেন। তাঁকে সঙ্গে রাখা মানে বিপদ ডেকে আনা।

উল্লেখ্য, গত ২০ অগাস্ট রাতে ‘সম্পাদকীয়’ শিরোনামে সময় টিভির এক আলোচনা অনুষ্ঠানে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী দাবি করেন, সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ যখন ‘চট্টগ্রামের জিওসি’ ছিলেন, সেখান থেকে ‘সমরাস্ত্র ও গোলাবারুদ চুরি’ যাওয়ার ঘটনায় তার ‘কোর্ট মার্শাল’ হয়েছিল। এরপর বিষয়টি নিয়ে সারাদেশে সমালোচনার ঝড় ওঠে। সেনা সদরের পক্ষ থেকে একটি প্রতিবাদ লিপিও পাঠানো হয়। পরে সময় টিভি নিজেদের বক্তব্যসহ সেটি প্রচার করে। এরপর ‘সেনাপ্রধান সম্পর্কে শব্দ চয়নে ভুল ছিল’ উল্লেখ করেন সেনাপ্রধানের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। অবশ্য এর আগেই ড. জাফরুল্লাহর মন্তব্যকে ‘অসত্য, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল’ আখ্যায়িত করে ক্যান্টনমেন্ট থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) দায়ের করেন সেনাবাহিনীর মেজর এম রকিবুল আলম। সেনাপ্রধানের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও বিদ্বেষপূর্ণ মন্তব্যের বিষয়টি তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে