আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২০:১৭

আ.লীগের মনোনয়নে নাটকীয় পরিবর্তন আসছে

অনলাইন ডেস্ক
আ.লীগের মনোনয়নে নাটকীয় পরিবর্তন আসছে

শেষ পর্যন্ত যদি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্য হয় তাহলে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নাটকীয় পরিবর্তন হবে। এরকম ঐক্য প্রক্রিয়া হলে আওয়ামী লীগ ২০০৮ সালের আদলে মহাজোট করবে। মহাজোটের শরিকদের ৫০ থেকে ৭০ আসন পর্যন্ত ছেড়ে দিতে পারে আওয়ামী লীগ। এছাড়াও প্রায় চূড়ান্ত হওয়া মনোনয়নেও ব্যাপক রদবদল হতে পারে। আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে কথা বলে এই তথ্য জানা গেছে।

আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো জানিয়েছে, দলের সভাপতি একাদশ জাতীয় সংসদের মনোনয়নের জন্য তিনটি তালিকা নিয়ে কাজ করছেন। প্রতি তিনমাস অন্তর অন্তর জরিপ করে তালিকাগুলোকে হালনাগাদ করা হচ্ছে। তবে, যেভাবেই নির্বাচন হোক না কেন ৭০ থেকে ৭৭ টি আসনে কোনো পরিবর্তন হবে না। এই আসনগুলো দলের সিনিয়র নেতা এবং জনপ্রিয় এমপিদের।

বিএনপি যদি ২০ দলগত ভাবে নির্বাচন করে সেক্ষেত্রে প্রথম তালিকার অনেকে বাদ পড়বে। প্রথম তালিকা করা হয়েছে, ১৪ দলীয় জোটের হিসেব মাথায় রেখে। যেখানে ধরে নেওয়া হয়েছে যে, বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে না। এই তালিকায় প্রধান প্রতিপক্ষ ধরা হয়েছে, এরশাদের জাতীয় পার্টি এবং অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্টকে। এরকম নির্বাচনে আওয়ামী লীগ তার জোটের শরিকদের ২০ থেকে ২৫ টি আসনের বেশি ছাড় দেবে না। এই রকম নির্বাচন হলে, আওয়ামী লীগ দলের ত্যাগী এবং পরীক্ষিত কর্মীদের প্রাধান্য দেবে। শিল্পপতি এবং ব্যবসায়ীদের মনোনয়ন দেওয়া হবে কম। জাতীয় পার্টি প্রধান প্রতিপক্ষ হলে, রংপুর বিভাগকে গুরুত্ব দেওয়া হবে।

আবার যদি বিএনপি শুধু ২০ দলকে নিয়ে নির্বাচন করে, সেক্ষেত্রে আওয়ামী লীগ দ্বিতীয় তালিকা ব্যবহার করবে। সেক্ষেত্রে আওয়ামী লীগ জাতীয় পার্টিকে সঙ্গে নিয়ে মহাজোট করবে। তখন শরিকদের জন্য ৫০ থেকে ৬০ আসন পর্যন্ত ছাড় দিতে পারে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এক্ষেত্রে মনোনয়নেও বেশ পরিবর্তন আসবে, রাজনীতিবিদদের স্থান দখল করবে ব্যবসায়ী, শিল্পী, খেলোয়াড়সহ পরিচিত মুখ। এ রকম নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বগুড়া, ফেনী, লক্ষ্মীপুরের মতো জেলার আসনগুলোতে ব্যাপক পরিবর্তন হবে।

আওয়ামী লীগের মনোনয়নে তৃতীয় তালিকাও রয়েছে। এই তালিকা তখনই প্রযোজ্য হবে যখন বিএনপি ২০ দলের বাইরে বৃহত্তর জোট করবে। ড. কামাল, যুক্তফ্রন্ট বা অন্যান্য দলকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে যদি বিএনপি নির্বাচন করে, সেক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকায় নাটকীয় পরিবর্তন হবে। তখন শিল্পপতি, ব্যবসায়ী এবং সমাজের পরিচিত মুখরা প্রাধান্য পাবে। এ রকম নির্বাচনে ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেটে আওয়ামী লীগ চমক জাগানো প্রার্থী দেবে।

আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল সূত্র বলছে, বিএনপি যদি জাতীয় ঐক্যের ব্যানারে নির্বাচন করে, তাহলে আওয়ামী লীগও ঐক্যের ডাক দেবে সেক্ষেত্রে বামদল, ইসলামী দলসহ সবার সঙ্গেই নির্বাচনী ঐক্য গড়ে তুলবে। এ রকম নির্বাচনে দলের জন্য প্রার্থীর ভূমিকা দেখা হবে না, দেখা হবে ঐ প্রার্থী জয়ী হতে পারবেন কি না। এমন অনেক নাম আওয়ামী লীগের তৃতীয় তালিকায় আছে যাদের দেখেই মানুষ উৎসাহিত হবে।

আওয়ামী লীগের একজন দায়িত্বশীল নেতা বলেছেন, ঢাকা উত্তরে প্রয়াত আনিসুল হক কে মেয়র মনোনয়ন দিয়ে শেখ হাসিনা যেমন সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন তেমনি চমক আসছে এবার মনোনয়নে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে