আপডেট : ২০ জানুয়ারী, ২০১৮ ১৫:৫২

আ.লীগের উপ কমিটিতে যাদের দেখতে চান শেখ হাসিনা

অনলাইন ডেস্ক
আ.লীগের উপ কমিটিতে যাদের দেখতে চান শেখ হাসিনা

আওয়ামী লীগের প্রক্রিয়াধীন উপকমিটিগুলোর সহ-সম্পাদক পদ থেকে বাদ পড়ছেন অনুপ্রবেশকারী ও প্রশ্নবিদ্ধ ব্যক্তিরা। দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এসব উপকমিটি থেকে তাদের বাদ দেওয়া হবে। তবে ত্যাগী ও দক্ষ নেতাদের বাদ দিয়ে এবং বিএনপি ও ছাত্রদলের একাধিক সাবেক ক্যাডারসহ বিতর্কিতদের নিয়ে গঠন প্রক্রিয়ায় থাকা এসব উপকমিটি নিয়ে এখনও তোলপাড় চলছে দলের ভেতরে বাইরে।

অনুপ্রবেশকারী ও প্রশ্নবিদ্ধ ব্যক্তিদের বিষয়টি তদন্ত করে খতিয়ে দেখার পর তাদের প্রসঙ্গে দলীয় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে শুক্রবার নিশ্চিত করেছেন দলের উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া।

তিনি বলেন, প্রক্রিয়াধীন অবস্থায় থাকায় বিভাগীয় উপকমিটিতে সহ-সম্পাদক হিসেবে যাদের নাম রয়েছে, আপাতত সবাই সদস্য হিসেবে থাকবেন। উপকমিটিগুলোর চেয়ারম্যান ও সদস্য সচিবরা তাদের সাংগঠনিক দক্ষতা যাচাই-বাছাই করার পর সহ-সম্পাদক নির্ধারণ করবেন। পরে দলের সভাপতি শেখ হাসিনা সহ-সম্পাদকদের নাম চূড়ান্ত করবেন। এরপর সহ-সম্পাদকদের নাম আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করবেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ূয়া আরও বলেছেন, অননুমোদিত কমিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসায় এক ধরনের বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে। এ নিয়ে বিভ্রান্ত হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উপকমিটির সহ-সম্পাদক ও সদস্যদের তালিকা জানাজানির পর এ নিয়ে দলের ভেতরে ক্ষোভ ও অসন্তোষ ছড়িয়ে পড়ে। এই অবস্থায় দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কার্যকর উদ্যোগ নেওয়ার জন্য দলের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে নির্দেশ দেন। এর পরপরই প্রক্রিয়াধীন উপকমিটিগুলোতে থাকা সহ-সম্পাদকদের আপাতত সদস্য হিসেবে রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ পাওয়া উপকমিটির সহ-সম্পাদকদের তালিকায় দলের ত্যাগী ও দক্ষ নেতারা স্থান পাননি। এমনকি বিএনপি ও ছাত্রদলের একাধিক সাবেক ক্যাডারসহ বিতর্কিতদের নিয়ে গঠিত এসব উপকমিটি নিয়ে এখনও চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা।

বুধবার রাত থেকেই ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দলের কেন্দ্রীয় উপকমিটি গঠনের খবর ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার পাশাপাশি ক্ষোভ-অসন্তোষ দেখা দেয়। বৃহস্পতিবার কয়েকটি গণমাধ্যমে এ-সংক্রান্ত খবর প্রকাশের পর বিষয়টি দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার নজরে আসে। এ নিয়ে তিনি সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর কার্যকর উদ্যোগ নেন দলের সাধারণ সম্পাদক।

এদিকে, আগামী তিন মাসের মধ্যে নতুন করে উপ কমিটি করারও ঘোষাণা দিয়েছেন ওবায়দুল কাদের।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে