আপডেট : ৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৫:৩৯

সাজা হলেই খালেদা জিয়াকে 'টা টা, বাই বাই' বলবেন বিএনপি নেতারা

অনলাইন ডেস্ক
সাজা হলেই খালেদা জিয়াকে 'টা টা, বাই বাই' বলবেন বিএনপি নেতারা

দুর্নীতির মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার শাস্তি হোক-এটা বিএনপিরই বহু নেতার চাওয়া বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগ নেতা হাছান মাহমুদ। তার দাবি, বিএনপির অনেক নেতা এই চাওয়া নিশ্চিত করতে সরকারের সঙ্গে ‘তলে তলে’ যোগাযোগ করছেন।

বৃহস্পতিবার (০৭ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক। কর্মসূচির আয়োজন করে ‘স্বাধীনতা পরিষদ’ নামে একটি সংগঠন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ক্ষমতায় থাকাকালে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার শুনানি এখন শেষ পর্যায়ে। এরই মধ্যে চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে বক্তব্য শেষ করেছেন খালেদা জিয়া, অন্য মামলাটিতে তার বক্তব্য লিখিত দিতে বলেছে আদালত।

আদালতে দেয়া বক্তব্যে বিএনপি নেত্রী তার বিরুদ্ধে মামলাকে বানোয়াট বলে সাজার আশঙ্কার কথা বলেছেন। তার ধারণা, সরকার একটি রায় দিয়ে তাকে দুর্নীতিবাজ প্রমাণ করতে চায়।

হাছান মাহমুদ বলেন, “বিএনপির অনেক নেতাই সরকারের সাথে তলে তলে যোগাযোগ করছেন। কারণ তারা চায় বেগম জিয়ার শাস্তি হোক। আর খালেদা জিয়ার শাস্তি হলেই তারা খালেদাকে ‘টা টা, বাই বাই’ দিয়ে অন্য কোন দল গঠন করবে নয়ত সরকারের সাথে আসতে চাইবে।।”

সৌদি আরবে খালেদা জিয়ার অবৈধ সম্পদের অনুসন্ধান চলছে বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি বিদেশি টেলিভিশনের সংবাদ হিসেবে প্রচার হওয়া ভিডিওর কথা উল্লেখ করেন হাছান মাহমুদ। আর এই ভিডিও নিয়ে বিএনপির বক্তব্য নাই কেন সে বিষয়ে দলের বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে জানতে চান তিনি।

হাছান বলেন, ‘খালেদা জিয়া যখন দুর্নীতিতে বিদেশে ধরা পড়েছে তখন আপনারা চুপসে গেছেন। আপনাদের মুখে কোন কথা নেই। এটি যদি আজ দেশের কোন পত্রিকা প্রকাশ করত তাহলে বলতেন এটা সরকারের ষড়যন্ত্র। এখন আর কিছু বলতে পারছে না। কারণ বিদেশের টিভি খালেদা জিয়ার অবৈধ অর্থের কথা প্রকাশ করেছে।’

‘খালেদা জিয়া ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় দেশকে দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন বানিয়েছিলেন। আর এখন তিনি নিজেই দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়ে গেলেন।’

ওই সংবাদে বলা হয়েছে, সৌদি আরব, কাতারসহ ১২টি দেশে খালেদা জিয়া ও তার পরিবারের ১২ বিলিয়ন ডলার (প্রায় এক লাখ কোটি টাকা) এর সম্পদ আছে। এই ‘অবৈধ অর্থ’ দেশে ফিরিয়ে আনার দাবি জানিয়ে হাছান বলেন, ‘এর আগেও তারেক, কোকোর অবৈধ অর্থ দেশে ফেরত আনা হয়েছে। আমি দাবি জানাব সরকার যেন সেই প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়ার অবৈধ অর্থ দেশে ফিরিয়ে আনে।’

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু, আওয়ামী লীগ নেতা এমএ করিম, বলরাম পোদ্দার প্রমুখ মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে