আপডেট : ২২ নভেম্বর, ২০১৭ ২০:০৪

লোহার ডান্ডা ছাড়া এই সরকারকে সারানো যাবে না: ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক
লোহার ডান্ডা ছাড়া এই সরকারকে সারানো যাবে না: ফখরুল

বর্তমান সরকারকে ‘জগদ্দল পাথর’ আখ্যায়িত করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘স্বাভাবিক পদ্ধতিতে এই সরকারকে সরানো যাবে না। তাই এদেরকে সরাতে এবং জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে সবাইকে রুখে দাঁড়াতে হবে। সবাইকে নতুন করে জেগে উঠতে হবে। লোহার ডান্ডা ছাড়া এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে সারানো যাবে না।’

বুধবার (২২ নভেম্বর) বিকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিন উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, ‘সরকারকে বিদায় করতে আমাদের হাতিয়ার লাগবে। কারণ এরা জনগণের অধিকার কেড়ে নিয়ে বন্দুক-পিস্তল হাতে নিয়ে জোর করে ক্ষমতায় বসে আছে। তাই এদেরকে সরিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে রুখে দাঁড়াতে হবে। সবাইকে আবার জেগে উঠতে হবে।’

খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বানাতে পারলে তারেক রহমান দেশে আসবেন এমন দাবি করে তিনি বলেন, ‘যেকোনো মূল্যে বর্তমান দখলদারি ক্ষমতাসীন সরকারকে বিদায় করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। কেননা দেশের মানুষ এদের কাছ থেকে মুক্তি পেতে চায়, চায় পরিবর্তন। শুধু ভাই ভাই বলে স্লোগান না দিয়ে অঙ্গীকার করতে হবে। আমরা যদি খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বানাতে পারি এবং জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে পারি তাহলেই তারেক রহমান নির্বাসিত থেকে দেশে আসবেন, অন্যথায় নয়।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘সরকার দেশের প্রতিটি প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করে দিচ্ছে। এরা বাংলাদেশকে একটি ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। মেগা প্রজেক্টের নামে মেগা লুট চালাচ্ছে। দেশের প্রধান বিচারপতিকে পর্যন্ত প্রথমে দেশ ছাড়তে পরবর্তী সময়ে পদত্যাগে বাধ্য করেছে। তাই এরা যদি রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকে তাহলে দেশের পতাকা থাকবে কিন্তু স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব ও অস্তিত্ব থাকবে না।’

ফখরুল বলেন, ‘আজকের পত্রিকায় দেখবেন জিম্বাবুয়ের ৩৭ বছরের স্বৈরাচার মুগাবের পতন, পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছেন। সেই খবর ছোট করে দেয়া হয়েছে। কারণ এই যে স্বৈরাচার, যে ১০ বছর ধরে ক্ষমতা দখল করে আছে তাদের ওপর প্রভাব পড়বে। এজন্য এই খবর বড় করে দেয়া যাবে না।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই জগদ্দল পাথরকে সরাতে না পারলে এই জাতির অস্তিত্ব থাকবে না। আমরা একটা ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত হবো। আমাদের একটা রাষ্ট্র থাকবে, পতাকা থাকবে কিন্তু অস্তিত্ব থাকবে না, স্বাধীনতা থাকবে না।’

দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তারেক রহমান তরুণদের নেতা, তিনি স্বপ্ন দেখিয়েছেন নতুন বাংলাদেশের, যেখানে থাকবে না গুম খুন ও বিচারবহির্ভূত হত্যা। তাই সত্যিকার অর্থে দেশ ও জাতির স্বাধীনতা ও মানুষের মুক্তি, গণতন্ত্র পেতে সবাইকে ঐক্যেবদ্ধভাবে জেগে উঠতে হবে।’

ছাত্রদল সভাপতি রাজীব আহসানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন সাবেক ছাত্রনেতা শামসুজ্জামান দুদু, আমান উল্লাহ আমান, খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, আজিজুল বারী হেলাল, শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, কামরুজ্জামান রতন, সুলতান সালাহ উদ্দীন টুকু, আমিরুল ইসলাম আলীম, আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের সিনিয়র সহসভাপতি মামুনুর রশীদ, সহসভাপতি এজমল হোসেন পাইলট, নাজমুল হাসান প্রমুখ।

সভা সঞ্চলনা করেন ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে