আপডেট : ২৮ মার্চ, ২০১৬ ১৫:৩২

‘দুই মন্ত্রীর মন্ত্রীত্ব চলে যাওয়া উচিত’-শাহ মোয়াজ্জেম

বিডিটাইমস ডেস্ক
‘দুই মন্ত্রীর মন্ত্রীত্ব চলে যাওয়া উচিত’-শাহ মোয়াজ্জেম

আদালত কর্তৃক দুই মন্ত্রী দণ্ডিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তাদের মন্ত্রীত্ব চলে যাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন। দুইমন্ত্রীর সাথে বর্তমান মন্ত্রিসভা থেকে সবমন্ত্রীকে বাদ দেয়ারও দাবি জানান তিনি।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন ব্যাংকের রিজার্ভের টাকা লুটের ঘটনায় দোষীদের বিচার না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সরকারের সাহায্য ছাড়া কেন্দ্রীয় ব্যাংকের টাকা চুরি হতে পারে না। এ ঘটনায় পুরো মন্ত্রিসভা তথা সরকারকে পদত্যাগ করা উচিৎ। ভালো মানুষ হলে প্রধানমন্ত্রী এবং অর্থমন্ত্রী পদত্যাগ করত।

দুই মন্ত্রিকে কুলাঙ্গার আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, এভাবে চলতে পারে না। পুরো মন্ত্রিসভাকে পদত্যাগ করতে হবে।

তিনি বলেন, বর্তমানে দেশে কোনো সুষ্ঠু নির্বাচন হচ্ছে না। শুধু নৌকা মাকার ভোট হচ্ছে। এ জন্য আমরা দেশ স্বাধীন করিনি।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে শাহ মোয়াজ্জেম বলেন, একটি নতুন কমিটি গঠনের পর আমাদের নেত্রী (খালেদা জিয়া) ডাক দেবেন। আপনারা তৈরি হোন। সবাই মিলে রাজপথে নেমে আন্দোলন জোরদার করি। এভাবে এই সরকার বিদায় নিতে বাধ্য হবে। এসময় বিএনপির এবং অঙ্গ সংগঠনের সব রাজবন্দির মুক্তি এবং মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

দন্ডিত দুই মন্ত্রী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এরা হলো কুলাঙ্গার। তারা আদালতকে কলঙ্কিত করেছেন। সংবিধানকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখানো এবং ভোটাধিকার কেড়ে নেয়ায় দুই মন্ত্রীর পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হবে। তিনি দলের নেতাকর্মীদেরকে আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য আহ্বান জানান।

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে এই সভার আয়োজন করে। স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহসভাপতি মুহাম্মদ মুনির হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, মহিলা দলের শিরিন সুলতানা প্রমুখ। এসময় ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

উপরে