আপডেট : ১৯ মার্চ, ২০১৬ ১১:৪৫

বেপরোয়া ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা

বিডিটাইমস ডেস্ক
বেপরোয়া ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা। নির্বাচনী এলাকাগুলোতে চলছে আচরণ বিধি লঙ্ঘনের মহোৎসব। প্রতিদিনই কিছু কিছু এলাকায় সংঘর্ষ চলছে। তফসিল ঘোষণার পর থেকেই নির্বাচনী সহিংসতায় এখন পর্যন্ত পাঁচজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন সহস্রাধিক নেতাকর্মী। তাদের মধ্যে বেশির ভাগই বিএনপি ও জামায়াতের লোকজন। তৃণমূলে ভোটের পরিবেশ নষ্ট হলেও কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না নির্বাচন কমিশন (ইসি)। যদিও নিজেদের নিরপেক্ষ প্রমাণে প্রতিদিনই হুঙ্কার ছাড়ছেন ইসি কমিশনাররা। দু’দিন আগে ইসি একজন এমপির বিরুদ্ধে মামলার নির্দেশ দিলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার মো: শাহ নেওয়াজ বলেছেন, আসন্ন ইউপি নির্বাচনে কেউ যেন কারো প্রতি চড়াও হতে না পারে আইনশৃঙ্খলা রাকারী বাহিনীকে সে নির্দেশনা দিয়েছি। যেকোনো অনিয়মের ক্ষেত্রে তারা যেন জিরো টলারেন্স দেখায়। এ ক্ষেত্রে তাদের কেউ দায়িত্ব পালনে অবহেলা করলে তাদেরও ছাড় দেয়া হবে না। তাদের গাফিলতি যেন নির্বাচন নষ্ট না করে সে নির্দেশনা দিয়েছি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আগামী ২২ মার্চ দেশের ৭৩৩টি ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ভোটের দিন এগিয়ে আসার সাথে সাথেই সহিংসতা বেড়ে চলেছে। ক্ষমতাসীনদের আচরণবিধি লঙ্ঘনের দুই শতাধিক অভিযোগ জমা পড়েছে ইসিতে। তবে ইসি দু-একটি অভিযোগের ভিত্তিতে পদক্ষেপ নিলেও বাকিগুলোর কোনো সুরাহা করছে না। ফলে কোনো বাধা ছাড়াই আচরণবিধি লঙ্ঘন করছেন ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী ও তাদের সমর্থকেরা।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, দলীয়ভাবে ইউপি নির্বাচন নিয়ে অনেক এলাকায় সংঘর্ষ ও সহিংসতার খবর গণমাধ্যমে এসেছে। লিখিতভাবে ইসিতে কী অভিযোগ এলো, গোলযোগ-সংঘর্ষ কোথায় কোথায় হয়েছে তার কোনো তথ্য ইসি সংরণ করছে না। সঠিকভাবে মনিটরিং না করায় প্রকৃত চিত্রও পাওয়া যাচ্ছে না।

নির্বাচন পরিচালনা শাখার উপসচিব সামসুল আলম বলেন, আমাদের কাজ ভাগ করা রয়েছে। সবাই নিজ নিজ কাজের বিষয়ে সচেতন। এ নিয়ে সমন্বয়হীনতা নেই। মাঠপর্যায়ে আচরণবিধি তদারকিতে নির্বাহী হাকিমের পাশাপাশি ভিজিলেন্স টিম ও কয়েকটি সমন্বয় কমিটি কাজ করবে। এতে সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত হবে আশা করি।

এ দিকে গত বৃহস্পতিবার আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে বরগুনা-২ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) শওকত হাচানুর রহমান রিমনের বিরুদ্ধে মামলার নির্দেশ দেয় ইসি। কিন্তু নির্দেশের পর তিন দিন অতিবাহিত হলেও মামলা দায়ের করেননি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনেও আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ এসেছিল। তখন তাকে শোকজ করা হলে ইসির কাছে দুঃখ প্রকাশ করে মা প্রার্থনা করেন তিনি। একই সাথে ভবিষ্যতে আর এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না করার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন।

অবশেষে গত রোববার ইসির উপসচিব মো: সামসুল আলম বরগুনার এসপিকে মামলা দায়ের করার জন্য চিঠি পাঠান। চিঠিতে বলা হয়, নির্বাচনী আচরণ বিধির ৩১ ধারা অনুযায়ী মামলা দায়েরের জন্য বলা হয়েছে। বিধি ৩১-এ বলা হয়েছে কোনো প্রার্থী বা তার পে অন্য কোনো ব্যক্তি নির্বাচন-পূর্ব সময়ে বিধিমালা লঙ্ঘন করলে ছয় মাসের কারাদণ্ড বা অনধিক ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

গত সোমবার বরগুনার বেতাগী উপজেলার মোকামিয়া ইউনিয়নে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব আলম সুজনের নির্বাচনী গণসংযোগে হামলা চালিয়েছে আওয়ামী লীগ কর্মীরা। এ সময় তাকে একটি ঘরে প্রায় দুই ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। হামলায় আহতদের বরগুনা জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন কিনিকে ভর্তি করা হয়।

বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব আলম সুজন বলেন, দুপুর দেড়টার দিকে আমি আমার কর্মীদের নিয়ে ছোট মোকামিয়া চৌকিদার বাড়িতে নির্বাচনী প্রচারণায় ঢুকলে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভাই পান্নু গাজী শতাধিক লোকজন নিয়ে চারপাশ থেকে ঘেরাও করে আমাদের ওপর হামলায় চালায়। এ সময় আমরা কোনো উপায়ান্তর খুঁজে না পেয়ে শাহিন নামে স্থানীয় এক মোটরসাইকেল চালকের বাসায় আশ্রয় নিই। সেই ঘরে প্রায় দুই ঘণ্টা আমাদের অবরুদ্ধ করে রাখা হয়।
দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রের মহড়া, কর্মীদের মারধর ও নির্বাচনী প্রচারে বাধা দিচ্ছে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা। এমন অভিযোগ এনে সোমবার রাতে মঠবাড়িয়া প্রেস কাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বেতমোর রাজপাড়া ইউনিয়নের বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী এস এম ফেরদৌস রুম্মান।

লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, গত ১০ দিন ধরে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন আকন নির্বাচনী আচরণ বিধি ভঙ্গ করে তার ছেলে বাচ্চু, ভাই জামাল, ভাগ্নে রিপন, ভাতিজা আরিফুজ্জামান জনি, শান্ত ও বহিরাগত কিছু সংখ্যক সন্ত্রাসী দিয়ে তার ধানের শীষ প্রতীকের কর্মীদের মারধর ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে বিভিন্ন রকম হুমকি দিয়ে আসছে। এ ছাড়া তার কর্মীদের ভোট কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্যও হুমকি দিচ্ছে।

সূত্র-নয়া দিগন্ত

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

উপরে