আপডেট : ১০ মার্চ, ২০১৬ ১৭:৩১

জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না: খাদ্যমন্ত্রী

মোস্তফা ইমরান, মালয়েশিয়া
জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না: খাদ্যমন্ত্রী

জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী এড. কামরুল ইসলাম।তিনি বলেন, সত্যিকারের মুক্তিযোদ্ধা হলে ক্ষমতা গ্রহনের পরপর-ই স্বাধীনতা বিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত হতেন না। বঙ্গবন্ধু খুনিদের প্রতিষ্ঠিত করতেন না, গোলাম আজমকে দেশে ফিরিয়ে আনতেন না।

বুধবার মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে "৭ই মার্চ, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শিরোনামে" মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগ কর্তৃক আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।   

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, যারা ৭ মার্চকে স্বীকার করে না, শ্রদ্ধা করে না, তারা স্বাধীনতা বিরোধী। যারা বাংলাদেশের ইতিহাস এবং মুক্তিযুদ্ধের সংখ্যা নিয়ে সমালোচনা করে তারা কখনও দেশের মঙ্গল চায় না।

তিনি আরো বলেন, ৭১’র চেতনাকে সরিয়ে জিয়াউর রহমানের দেখানো পথেই খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান চলছেন।জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা সেটা আমি স্বীকার করিনা। কারণ জিয়াউর রহমান বলেছিলেন বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণে অনুপ্রানিত হয়ে তিনি মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন।তিনি আবার ক্ষমতায় এসে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি করেছেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলেছে। দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ণ।বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দৃঢ় প্রত্যায় নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন। তার দৃঢ়তায় যুদ্ধপরাধীদের বিচার কাজ দ্রুত গতিতে অবলিলায় এগিয়ে চলছে।

মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক অহিদুর রহমান অহিদের সভাপতিত্বে ও মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো: শাহীন সরদারের সঞ্চালনায় এ আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব মকবুল হোসেন মুকুল।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের যুগ্ন-আহবায়ক রাশেদ বাদল, বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত হোসেন পান্না, মালয়েশিয়া আওয়ামী যুবলীগের সাবেক আহবায়ক এ কামাল চৌধুরী, হাফিজুর রহমান ডাবলু, হুমায়ূন কবির, আলমগীর হোসেন, শাখাওয়াত হক জোসেফ, এ্যাডভোকেট মিনহাজ উদ্দিন মিরান, শাখাওয়াত হোসেন, তাজুল ইসলাম মান্না, শফিকুর রহমান চৌধুরী, জহুর বারু আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহজাহান আহম্মেদ, সাধারন সম্পাদক তরিকুল ইসলাম আমিন, ক্যামেরন হাইল্যান্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি বিল্লাল হোসেন, শাহ আলম শ্রীমুদা আওয়ামীলীগের সভাপতি মতিন সরকার, হাংতুয়া আওয়ামীলীগের ইমন প্রমুখ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

 

উপরে