আপডেট : ৫ মার্চ, ২০১৬ ২১:০২

গৌরনদীতে বিএনপি প্রার্থী লাঞ্ছিত, নির্বাচনী প্রচারণায় পদে পদে বাধা ক্ষমতাসীনদের

নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে পরিবার
গৌরনদী (বরিশাল) প্রতিনিধি
গৌরনদীতে বিএনপি প্রার্থী লাঞ্ছিত, নির্বাচনী প্রচারণায় পদে পদে বাধা ক্ষমতাসীনদের
বিএনপি প্রার্থী মির্জা সেকেন্দার আলম

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার নলচিড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কা প্রার্থীর সমর্থকরা তাণ্ডব চালিয়েছে। ৫ মার্চ শনিবার সকালে বিএনপির মনোনীত ধানের শীষের প্রতীকের প্রার্থী মির্জা সেকেন্দার আলম ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মীর মাসুদ উদ্দিনের সমর্থকদের ওপর হামলা চালায় তারা। লাঞ্চিত করা হয় সেকান্দার আলমকে আর ভেঙ্গে ফেলা হয় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর নির্বাচনি কার্যালয়। আওয়ামী লীগের সমর্থকদের হামলায় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে । ছিড়ে ফেলা হয়েছে বিএনপি প্রার্থীর সব পোস্টার।  বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রতীকের প্রার্থী মির্জা সেকেন্দার আলম জানান, শনিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তার সমর্থকরা পোষ্টার নিয়ে কয়ারিয়া এলাকায় যান। এসময় মটর সাইকেলের মহড়া নিয়ে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা তার কর্মীদের ধাওয়া করে পোষ্টার ছিনিয়ে নেন এবং কয়ারিয়া লঞ্চঘাট থেকে নলছিড়া বাজার পর্যন্ত লাগানো সব পোষ্টার ছিড়ে ফেলা হয়। পোষ্টার ছিনিয়ে নেয়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছলে আমাকেও লাঞ্চিত করা হয়। নৌকার সমর্থকদের হামলায় আমার ৭জন কর্মী আহত হলেও এখন চিকিৎসার জন্য তাদের হাসপাতালেও নিয়ে যেতে পারছি না। প্রচণ্ড নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

নলচিড়া ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মীর মাসুদ উদ্দিন জানান, সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম হাফিজ মৃধার প্রায় শতাধিক সমর্থক যুবলীগ-ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ৩০/৩৫ টি মটরসাইকেলযোগে লাঠিসোটা নিয়ে মহড়া দিয়ে নলচিড়া বাজারে প্রবেশ করে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, নৌকা মার্কার সমর্থকরা আমার নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে চেয়ার , টেবিলসহ ব্যাপক ভাঙচুর করেছে এবং অফিসে থাকা আমার সমর্থক রিয়াদ শরীফ (২৫), আক্কাস শিকদার (২২), নুর আলম (২০) সহ ৫জনকে মারধর করে অফিস থেকে বের করে দেন। আমাকে মারার জন্য খুঁজতে থাকেন। অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে নৌকা মার্কার প্রার্থী গোলাম হাফিজ মৃধা বলেন, হামলার অভিযোগ সঠিক নয়, রাজনৈতিক সুবিধা নিতে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। হামলার বিষয়ে গৌরনদী থানার ওসি আলাউদ্দিন মিলন বিডিটাইমসকে বলেন সব ঘটনার মূলে আসলে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মীর মাসুদ উদ্দিন। নির্বাচনকে কলুষিত করতে তিনিই এরকম ঘটনা ঘটাচ্ছেন। বিএনপি প্রার্থীদের ওপর হামলার কোন ঘটনা তার জানা নাই বলে জানান তিনি।

উপরে